শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১১:৩৪ পূর্বাহ্ন

এক ঘণ্টার পুলিশ সুপার স্কুলছাত্রী রিমি

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : বুধবার ২৮ অক্টোবর, ২০২০
  • ২৮ বার পঠিত

নারী নির্যাতন, কন্যা শিশু বান্ধব পরিবেশ সৃষ্টি, নারীর প্রতি সহিংসতা বন্ধ, ইভটিজিং, কিশোর গ্যাং, বাল্যবিয়ে রোধ, সাইবার ক্রাইম নিয়ন্ত্রণ ও সামাজিক অপরাধ রোধে সুপারিশমালা তুলে ধরেছেন ভোলার ‘প্রতীকী’ পুলিশ সুপার তাসনিম আজিজ রিমি।

এক ঘণ্টার জন্য পুলিশ সুপারের দায়িত্ব পেয়ে তিনি এ সুপারিশ তুলে ধরেন।

রিমি ভোলা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্রী।

প্লান ইন্টারন্যাশনালের সহযোগিতায় ‘গালর্স টেকওভার’ কর্মসূচির আওতায় ন্যাশনাল চিলড্রেন টাক্স ফোর্সের (এনসিটিএফ) আয়োজনে তাকে ভোলার পুলিশ সুপারের দায়িত্ব দেওয়া হয়।

বুধবার (২৮ অক্টোবর) দুপুরে পুলিশ সম্মেলন কক্ষে এ অনুষ্ঠান হয়।

ভোলার পুলিশ সুপার সরকার মো. কায়সার তাকে প্রতীকী দায়িত্ব তুলে দেন। এরপর স্কুল ছাত্রী রিমি এক ঘণ্টার জন্য পুলিশ সুপারের দায়িত্ব গ্রহণ করেন। এ সময় তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়।

বক্তব্যে রিমি বলেন, একটি সুষ্ঠু সমাজ ও নিরাপদ পরিবেশের স্বপ্ন দেখেন তিনি। একই সঙ্গে তিনি ধর্ষকদের প্রকাশ্যে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করার প্রস্তাব দেন।

গার্লস টেকওভার’ কর্মসূচির মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে একজন কিশোরী, কন্যাশিশু অথবা যুব নারীকে নেতৃত্ব প্রদানকারীর ভূমিকা পালন করতে সহায়তা করা, যাতে তার আত্মবিশ্বাস বাড়ে এবং নিজের স্বপ্ন পূরণে সে অঙ্গীকারাবদ্ধ হয়।

অনুষ্ঠানে শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা আখতার হোসেন, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা চামেলি বেগম, উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক আবিদুল আলম, এনসিটিএফের জেলা সমন্বয়কারী আদিল হোসেন তপু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..