বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ১১:০৯ অপরাহ্ন

এলজিইডির দেড় কোটি টাকার সড়ক নির্মান নিয়ে পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১২ ফেব্রুয়ারী, ২০২২

পটুয়াখালীতে এলজিইডি’র একটি সড়ক নির্মান নিয়ে এলাকাবাসী ও ঠিকাদারের পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত শুক্রবার সকালে এলাকাবাসী এবং আজ শনিবার(১২ফেব্রুয়ারি) ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান পটুয়াখালী প্রেসক্লাবে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে এলাকাবাসীর পক্ষে বশির হাওলাদার(৪২),ওয়ালি উল্লাহ(৫০), ফজলুল হক হাওলাদার(৬৫) ও রনি(২৬) অভিযোগ করে জানান,পটুয়াখালী সদর উপজেলার ইটবাড়িয়া ইউনিয়নের ২নং ব্রীজ থেকে কঁচাবুনিয়া খেয়াঘাট পর্যন্ত ৪.৩ কিলোমিটার সড়ক মেসার্স এনায়ে হোসেন নামের একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে পূর্ন:নির্মানের কার্যাদেশ প্রদান করে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর। চলতি অর্থ বছরের ফেব্রুয়ারি মাসের মধ্যে সড়কের নির্মান কাজ শেষ করার নির্দেশনা রয়েছে।

তারা অভিযোগ করে বলেন,ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুস সোবহান হাওলাদার এবং ইউনিয়ন বিএনপির সাবেক সভাপতি মো.গোলাম রাব্বানী কোন নিয়ম নীতি না মেনে সড়কের নির্মান কাজ শুরু করেন। দুই দলের দুই নেতা জোটবদ্ধ হয়ে নিন্মমানের ইট ব্যবহার করে তিন ইঞ্চি ম্যকাডামের স্থলে এক ইঞ্চির কম ম্যাকাডাম দিয়ে কাজ শুরু করলে এলাকাবাসী এতে বাঁধা দেন। এলাকাবাসীর বাঁধার প্রেক্ষিতে ঐ দুই নেতা প্রতিবাদকারী রনিকে চাঁদাবাজী মামলা দিবেন এবং কেটে দুই টুকরা করে ফেলবেন বলে হুমকী প্রদান করেন।

এলাকাবাসীর দাবী ঐ সড়কটি দিয়ে কঁচাবুনিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়সহ চারটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শত শত শিক্ষার্থী যাতায়ত করে। চারটি ব্রীক ফিল্ডের মালামাল ঐ সড়কটি দিয়ে শহরে পৌছায়। এছাড়া সড়কটি ব্যবহার করে কালিচান্নাসহ ইউবাড়িয়া ইউনিয়নের তিন ভাগের একভাগ লোক জেলা শহরে যাতায়ত করে। যেনতেন ভাবে কাজ করে ঠিকাদার বিল নিয়ে গেলে উল্লেখিত এলাকার শিক্ষার্থী,ব্যবসায়ী ও সাধারন মানুষের দূর্ভোগের সীমা থাকবে না বলে দাবী করেন তারা। তাদের দাবী বার বার স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরকে অনিয়মের বিষয়টি অবহিত করা হলেও তারা যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করেন নি।

এদিকে শনিবার সকালে পটুয়াখালী প্রেসক্লাবে পাল্টা সংবাদ সম্মেলনে আবদুস সোবাহান হাওলাদার(৬৫) ও গোলাম রাব্বানী দাবী করেন শহর সংলগ্ন এই সড়ক পূন:নির্মানে কোন অনিয়ম করার সুযোগ নেই। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের নিয়মিত তদারকীতে তাদের করতে হয়। স্থানীয় যুবক রনি একজন মাদক ব্যবসায়ী। ২০১৩ সালে একটি ৩৩২ বোতল ফেন্সিডিলসহ পুলিশের হাতে আটক হলে ঐ মামলার ১নং স্বাক্ষী ছিলেন গোলাম রাব্বানী। সেই মামলায় রনি ৬ বছর কারাবাস করার পর সম্পতি ছাড়া পেয়েছেন। কাজে অনিয়মের অভিযোগ তোলার মুল কারন আগের মামলায় স্বাক্ষী দেয়ার ক্ষোভ। তারা অভিযোগ করে বলেন,সড়কে গিয়ে রনি তাদের শ্রমিকদের মারধর করেছে এবং চাঁদা দাবী করেছে। বিষয়টি পটুয়াখালী সদর থানাকে অবহিত করেছেন তারা। মাদক ব্যবসায়ী এই যুবকের হয়রানী থেকে মুক্তির বিষয়ে সাংবাদিকদের সহয়তা চান তারা।

এ বিষয়ে পটুয়াখালী স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ শাহাবুদ্দিন জানান,সড়ক নির্মানে খারাপ ইট ব্যবহারের কোন সুযোগ নেই। তারপরও স্থানীয় জনগনের অভিযোগের প্রেক্ষিতে প্রকৌশলী পাঠিয়ে সাইট থেকে ইট এনে ল্যাবরেটরীতে টেষ্ট করানো হয়েছে। স্থানীয় একটি কোন্দলকে কেন্দ্র করে এলজিইডির উপর দোষ চাপাতে একটি চক্র অপচেষ্টা করছে। সড়ক নির্মানে আগেও তদারকী ছিলো এবং কাজ শেষ না হওয়া পর্যন্ত তদরকী আরো বাড়ানো হবে বলেও দাবী করেন তিনি

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়:
x