শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ০৮:২৪ পূর্বাহ্ন

ওলামাদের বিক্ষোভ ও ৬ দফা দাবি পেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ১৭ জুন, ২০২২

মহাখালী কওমী মাদরাসা ঐক্য পরিষদ-এর উদ্যোগে আজ শুক্রবার, বাদ জুম’আ, সর্বস্তরের তৌহিদী জনতাকে নিয়ে এক বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। বিক্ষোভ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন আল্লামা ইকবাল সিরাজী। মুফতি রুহুল আমীন ও মুফতি মাহমুদুল হাসান এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, মাওলানা মুজিবুর রহমান ফরাজী (পীর সাহেব সূর্য্যপুর), হাফেজ ক্বারী ইবরাহীম বিন আলী (পীর সাহেব মহাখালী), মুফতি আব্দুল্লাহ আল মুর্তাজা কাসেমী, মুফতি রিয়াজুল আমীন, মাওলানা জাকারিয়া, মুফতি এহতেশামুল হক, মাওলানা ওবায়দুল্লাহ নূরানীসহ প্রমূখ উলামায়ে কেরাম।

নেতৃবৃন্দ বলেন, ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপির মুখপাত্র নূপুর শর্মা ও নবীন কুমার জিন্দাল মহানবী হযরত মোহাম্মদ সা. ও আম্মাজান হযরত আয়েশা রা:-কে নিয়ে কুরুচিপূর্ণ ও আপত্তিকর মন্তব্য করে ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ করেছে। এ মন্তব্য বিশ্বমুসলিম উম্মাহর ধর্মীয় অনুভুতিতে চরম আঘাত। অবিলম্বে অপরাধীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান এবং ভারত সরকারকে মুসলিম উম্মাহর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করতে হবে। একজন মুসলমানের কাছে নবী সা. এর ভালবাসা নিজের জানের চেয়েও বেশি। মুসলমানরা নবীর প্রেমে জান কোরবান করতেও দ্বিধা করে না। তারা বলেণ, সারাবিশ্বের মুসলিম দেশগুলোর প্রধান ভারতের এহেন কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানালেও বাংলাদেশ সরকার এব্যাপারে নিশ্চুপ ভুমিকাল পালন করছে। এতে দেশের ৯২ ভাগ মুসলমান সরকারের আচরণে ব্যথিত ও মর্মাহত। ওলামায়ে কেরাম বলেন, সরকার নিজেকে একজন তাহাজ্জুদ গুজার বলে দাবি করেন এবং মদীনার সনদে দেশ চালান বলেও দাবি করেন। অথচ এখন আমরা দেখছি সরকার মদীনার সনদের পরিবর্তে মোদির দেয়া সনদে দেশ চালাচ্ছন। এজন্য ভারতের বিরুদ্ধে নিন্দা জানাতে ব্যর্থ হয়েছে।

সমাবেশশেষে একটি বিশাল মিছিল মহাখালীর বিভিন্ন রাস্তা প্রদক্ষিণ করে দোয়া ও মুনাজাতের মাধ্যমে সমাপ্ত ঘোষণা করেন।
ওলামায়ে কেরামগণ বলেন, শতকোটি মানুষের প্রাণের স্পন্দন মহানবী (স.)-এর সম্মানহানী করা এবং প্রতিবাদী জনতার সম্পদ বুলডোজার দিয়ে গুড়িয়ে দেয়ার যে হিংস্রতা বিজেপি শাসিত ভারত দেখাচ্ছে তা সভ্যতার এক কলঙ্ক জনক দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। বিজেপির এই বর্বরতা ভারতের ভিত্তি-শর্ত ভঙ্গ করেছে। এর পরিণতিতে ভারতের অখন্ডতা হুমকিতে পড়বে, গোটা উপমহাদেশে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়বে।

বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে ৬ দফা দাবি জানানো হয়। ১. ভারতের ঘটনায় নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান ওলামায়ে কেরাম ২.নূপুর শর্মা ও নবকুমার জিন্দালকে গ্রেফতার ও ফাসী দিতে হবে। ৩. বিজেপি সরকারকে মুসলিম উম্মাহর কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থণা করতে হবে। ৪.চলতি সংসদ অধিবেশনে নিন্দা প্রস্তাব পাশ ৫. ভারতীয় হাইকমিশনকে ডেকে নিন্দা জ্ঞাপন করা ৬. সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণ করা।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়: