রবিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০৮:৩৪ পূর্বাহ্ন

কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারে কম্পিউটার অচল, নেই উচ্চগতির ইন্টারনেট সুবিধা 

রিফাত ইসলাম, বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার ২৫ নভেম্বর, ২০২১
  • ৩৬

গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার “একুশে ফেব্রুয়ারি লাইব্রেরী” এর কম্পিউটার ল্যাবে কম্পিউটারে যান্ত্রিক সমস্যা এবং ইন্টারনেট জনিত ত্রুটির কারণে কম্পিউটার ব্যবহার করতে পারছেনা শিক্ষার্থীরা।

জানা যায়, গ্রন্থাগারের কম্পিউটার ল্যাবে ৪০টি কম্পিউটারের মধ্যে ৮টি কম্পিউটার সম্পূর্ণভাবে অচল হয়ে আছে এবং বাকি ৩২ টি কম্পিউটারের মধ্যে কিছু কম্পিউটার যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে চালু করা যায় না এবং যেগুলো চালু করা যায় সেগুলোতে ইন্টারনেট ব্যবহার করা যায় না।

এ বিষয়ে ইলেক্ট্রিক্যাল এন্ড ইলেক্ট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী মোঃ খায়রুল ইসলাম জানান, “কম্পিউটারের সমস্যার কারণে পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে ল্যাবে ইন্টারনেট থেকে ডাটা সংগ্রহ করে স্লাইড বানানো সম্ভব হচ্ছে না।”

তিনি বলেন, “ল্যাবে অধিকাংশ কম্পিউটার চালু হয়না যেগুলো চালু করা যাচ্ছে সেগুলোতে ইন্টারনেটের পর্যাপ্ত পরিমাণ গতির অভাবে ব্রাউজিং করা যাচ্ছে না।”

এ বিষয়ে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগ দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী দেলোয়ার হোসেন বলেন, “দীর্ঘদিন যাবৎ কম্পিউটার সমস্যার কারণে এসাইনমেন্ট এর জন্য প্রয়োজনীয় প্রয়োজনীয় তথ্য ইন্টার্নেট ব্রাউজিং এর মাধ্যমে সংগ্রহ করতে পারছিনা। যার কারনে আমাদেরকে বাইরের কম্পিউটার দোকানে গিয়ে অতিরিক্ত টাকা খরচ করে নেটের কাজ করতে হয়।

কম্পিউটার ল্যাব সম্পর্কে জানতে চাইলে কম্পিউটার ল্যাব টেকনিশিয়ান নয়ন সিকদার বলেন, “লাইব্রেরী থেকে কম্পিউটার চুরি হওয়ার পর কিছু সমস্যা দেখা দিয়েছে। তবে তিনি কম্পিউটার এর সমস্যাগুলো সম্পর্কে লাইব্রেরীয়ানকে অবহিত করবেন বলে জানান।”

কম্পিউটার জনিত সমস্যা সমাধান সম্পর্কে জানতে চাইলে লাইব্রেরিয়ান নাছিরুল ইসলাম বলেন, “করোনাকালীন লকডাউনে গ্রন্থাগার থেকে কম্পিউটার চুরি হয়ে যাওয়ার কারণে বিষয়টি নিয়ে আদালতে মামলা চলমান আছে। যার কারণে মামলার রায় না হওয়া পর্যন্ত কম্পিউটারে কোন প্রকার সমস্যা সমাধান করা যাচ্ছে না।”

তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রারকে উদ্দেশ্য করে বলেন, “বিষয়টি সম্পর্কে রেজিস্ট্রারকে জানানো হয়েছে। এ বিষয়ে রেজিস্টার কোন প্রকার পদক্ষেপ না নিলে আমি কিছুই করতে পারবোনা।”

উল্লেখ্য, বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীদের এসাইনমেন্ট, প্রেসেন্টেশনসহ বিভিন্ন কাজে কম্পিউটার এর সাথে উচ্চগতির ইন্টারনেট প্রয়োজন হয়। কিন্তু বশেমুরবিপ্রবি ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীরা উচ্চগতির ইন্টারনেট এবং কম্পিউটার সুবিধা থেকে বঞ্চিত।

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..