বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ০২:১৫ পূর্বাহ্ন

কয়রায় চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে ঘাটাখালীর ভেঙ্গে পড়া বেড়ীবাঁধ নির্মাণ

খুলনা প্রতিনিধি
  • আপডেট টাইম : ১১ জুন, ২০২০
  • ৪৪ বার পঠিত

আমাদী ইউনিয়নের বার বার নির্বাচিত মাদার তেরেসা পুরষ্কারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জনাব আলহাজ্ব আমির আলী গাইনের নেতৃত্বে কয়রার ঘাটাখালী ভাঙ্গা বেড়ীবাঁধের রিং বাঁধ কাজে আমাদী ইউনিয়ন থেকে ৩৫০ জন সাধারণ মানুষ বেড়ীবাঁধের কাজে স্বেচ্ছায় অংশগ্রহন করেন। বৃহস্পতিবার (১১ জুন) সকাল থেকেই স্বেচ্ছাসেবকদের নিয়ে বাঁধের কাজ করেন তিনি।

এ সময় আমাদী ইউনিয়নের সংরক্ষিত মহিলা ওর্য়াডের সকল মহিলা ইউপি সদস্যরাও উপস্থিত ছিলেন। আরো উপস্থিত ছিলেন ইউপি সদস্য শাহ্ মো: রবিউল ইসলাম, বাবু বিশ্বজিৎ সিনহা, অজয় কুমার গোল্ডেন, হাবিবুল্লাহ, অমলেন্দু সানা, প্রশান্ত কুমার বাইন, এছাড়া বাঁধ নির্মাণ কাজে আরো অংশগ্রহন করেন বাগালি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জনাব আব্দুস সাত্তারপাড় সহ তার ইউনিয়নের নির্বাচিত মেম্বরসহ বিভিন্ন শ্রেণির লোক।

কয়রার সাধারণ মনুষের অক্লান্ত পরিশ্রমে ঘাটাখালী এলাকার ভাঙা বেড়ীবাঁধের রিং বাঁধ নির্মাণ সম্পন্ন হয়েছে। এ সময় কয়রা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব শফিকুল ইসলাম বলেন কয়রার মানুষ আবারও প্রমাণ করেছে জনগণের ঐক্যবদ্ধ শক্তির সামনে কোনো কিছুই অসম্ভব নয়। আজ থেকে কয়রা সদরের লোকালয়ে আর জোয়ার ভাটা দেখতে হবেনা। দীর্ঘ ২০ দিন পরে স্বস্তি ফিরেছে সদর ইউনিয়নের মানুষের মনে। তবে বাঁধ মজবুত করতে আগামীকালও আমরা বাঁধের কাজ অব্যাহত রাখবো।

আজ বাঁধ এলাকায় লোক সমাগমে রেকর্ড সৃষ্টি হয়েছিল, দশ হাজারেরও বেশি মানুষ ভোরবেলা থেকে স্বেচ্ছায় শ্রম দিয়ে ঘাম ঝরিয়েছে জোয়ার আসার আগ পর্যন্ত । এদের মধ্যে অধিকাংশই এই জনপদের গরীব অসহায় খেটে খাওয়া মানুষ। তিনি বলেন একটাই আকুতি, রিং বাঁধটির তদারকির দায়িত্ব নিন। আবার যেনো ধসে না পড়ে। তার জন্য প্রতিনিয়ত সংষ্কার কাজ অব্যাহত রাখুন।

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..