বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ১০:৩৪ অপরাহ্ন

জমি দখলের অভিযোগে আ’লীগ নেতা গ্রেফতার করেছে পুলিশ

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ১১ এপ্রিল, ২০২২

পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া গভীর রাতে ভাড়াতে সন্ত্রাসী নিয়ে টিনের চালা ঘর তুলে জমি অবৈধ ভাবে দখলের অভিযোগ উঠে, সাবেক ইউপি সদস্য এবংশালবাহান ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম লালুর বিরুদ্ধে এ অভিযোগে গ্রেফতার করেছে মডেল থানা পুলিশ। সোমবার ১১ এপ্রিল বিকেলে কালান্দি গঞ্জ এলাকার। নিজ বসতবাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করে থানা হেফাজতে প্রেরন করা হয়েছে।

জানা যায়, গত শনিবার গভীর রাতে শালবাহান ইউনিয়নের কালান্দিগঞ্জ এলাকার পত্মীপাড়া গ্রামের জাহেরুল ইসলামের ভোগদখলীয় জমি ভাড়াতে সন্ত্রাসি লোকবল নিয়ে অবৈধভাবে দখল করেন লালু ও তার সহোদর তিন ভাই। জমি দখলে বাঁধা দিতে গেলে চরম মারধরের শিকার হন ভুক্তভোগীরা।পরে গুরুতর আহত ভুক্তভোগী জাহেরুল ইসলামকে উদ্ধার করে তেঁতুলিয়া উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় নাজমুল ইসলাম বাদী হয়ে শালবাহান ইউনিয়নের কালান্দিগঞ্জের পত্মীপাড়া গ্রামের সোহরাব আলীর চারপুত্র তারা মিয়া (৪০), বাবুল আক্তার (৩৫), নুরুল ইসলাম লালু (৫০)সহ ১৮ জনকে অভিযুক্ত করে থানায় এজাহার করেন।

অভিযোগে জানা যায়, বোয়ালমারী মৌজার ১৮ খতিয়ানের ২০০৫, ২০০৬ ও ২০০৭ এই তিনটি দাগে ১ একর ৭৩ শতক জমির মধ্যে ৬৩ শতক জমি দীর্ঘ দিন ধরে তিনি ভোগ দখল করে আসছেন জাহেরুল ইসলাম ও তার পুত্র নাজমুল ইসলাম। কিন্তু তফশীল বর্ণিত জমি অভিযুক্তরা দাবি করছেন জমি তাদের । অভিযোগ কারী জানান, সাবেক ইউপি সদস্য লালু দীর্ঘ সময় ধরেই জমি জবর দখলে গভীর ষড়যন্ত্র করে আসছিলেন। এ নিয়ে আদালতে দ্বারস্থ হলে উভয় পক্ষকে স্ব-স্ব অবস্থানে থাকার নির্দেশ প্রদান করা হয়।

আরো জানান, বাটোয়ারা মামলা করে রায় পান ভুক্তভোগীরা। অপরদিকে অভিযুক্তরা আদালতে মামলা করলে তা খারিজ হয়ে যায় বলে জানান অভিযোগ কারী

ভুক্তভোগী নাজমুল জানান, রমজানের সেহরীর সময় ভাড়াতে লোকজনসহ ধারালো অস্ত্র নিয়ে জবর দখল করতে জমিতে অবস্থান নেন তারা মিয়া, বাবুল, নুরুল ইসলাম লালু ও মোস্তফা চার ভাইসহ গংরা। অস্ত্রসস্ত্র দিয়ে ভয়ভীতি দেখান। বাধা দিতে গেলে মারধর করে জোরজবস্ত করে জমিতে দুটি টিনের ছাপড়া তুলে তারা। উপায়ন্তর না পেয়ে ৯৯৯ নম্বরে পুলিশে ফোন দিলে দ্রæত তেঁতুলিয়া মডেল থানা পুলিশ দ্রæত ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে জমি দখলে বাধা দেন ও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

হাসপাতালে চিকিৎসারত ভুক্তভোগী জাহেরুল ইসলাম বলেন, দীর্ঘ সময় ধরেই রেকর্ডীয় এ জমি আমরা শান্তিপূর্ণভাবে ভোগ দখল করে আসছি। কিন্তু নুরুল ইসলাম লালু ও তার ভাইরা খতিয়ান বলে জমিটি তাদের দাবি করছে। এ নিয়ে আদালতে বাটোয়ারা মামলা করে রায় পেয়েছি। কিন্তু লালু গংরা শনিবার রাতে ভাড়াতে লোকজন নিয়ে জমিতে টিনের ছাপড়া তুলে দখল করে নেয়। বাধা দিতে গেলে মারধর করে। এক পর্যায়ে প্রাণনাশের উদ্দেশে আমার গলা চেপে ধরে জবাই করার চেষ্টা চালায়।

অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে এলাকায় রয়েছে বিস্তর অভিযোগ। মূর্তমান আতঙ্ক হিসেবে দেখছে এলাকাবাসী। জমি দখল, নিরীহ মানুষের ওপর চলে নির্যাতন, চাঁদাবাজি আর মিথ্যা মামলা দিয়ে এলাকার মানুষকে হয়রানিসহ বহু অপকর্মের অভিযোগ রয়েছে লালুর বিরুদ্ধে। তবে সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন লালুসহ অভিযুক্তরা। গ্রেফতারের আগে সব অস্বীকার করে নুরুল ইসলাম জানান, জমিটা আমাদের। তারা অবৈধভাবে দখল করে ভোগদখলে ছিল। তাই দখলে নিয়েছি।

এ বিষয়ে সোমবার সন্ধ্যায় মডেল থানার ওসি আবু ছায়েম মিয়া জানান, নুরুল ইসলাম লালু এজাহারভুক্ত আসামী। তিনি গত শনিবার গভীর রাতে অবৈধভাবে জমি দখলের সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন। তার বিরুদ্ধে গভীর রাতে জমি দখলের অভিযোগে লালুসহ ১৮জনকে নামীয় অভিযুক্ত করে মামলা করা হয়েছে। অজ্ঞাত করা হয়েছে একশো জনকে। অভিযোগের প্রেক্ষিতে গ্রেফতার করা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়:
x