বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ১১:৩৫ অপরাহ্ন

জামিন জালিয়াতিতে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে : আইন মন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন, ২০২২

আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, উচ্চ আদালতে জামিন জালিয়াতির কিছু অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটেছে। এ ধরনের অনভিপ্রেত জামিন জালিয়াতি বন্ধে জড়িত অপরাধীদের সনাক্ত করে ফৌজদারী আইনের বিচারের পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।
আজ বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদ অধিবেশনের প্রশ্নোত্তর পর্বে তিনি এ তথ্য জানান। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অধিবেশনে এ সংক্রান্ত প্রশ্নটি উত্থাপন করেন বিএনপির গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ। জবাবে মন্ত্রী বলেন, উপযুক্ত বিচার না হওয়ায় দেশের সর্বোচ্চ আদালতে একের পর এক জামিন জালিয়ারির ঘটনা ঘটছে এমন তথ্য সঠিক নয়। উচ্চ আদালতে জামিন জালিয়াতির কিছু অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটেছে।

সরকারি দলের কাজিম উদ্দিন আহমেদের প্রশ্নের জবাবে আনিসুল হক জানান, রেজিস্ট্রার ও সাব রেজিস্ট্রার অফিসে কর্মরত নকশনবীশের সংখ্যা ১৬ হাজার ২৪৫ জন। নকলনবীশদের চাকুরি রাজস্বখাতে ন্যস্ত করতে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে সুপারিশ করা হয়েছে। বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন আছে। শিগগিরই ইতিবাচক সিদ্ধান্ত হবে।
আওয়ামী লীগের সদস্য আব্দুল লতিফের প্রশ্নের জবাবে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম জানান, ২০২০-২১ অর্থ বছরে ৪৫ লাখ ৫২ মেট্রিক টন লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে মৎস্য উৎপাদন হয়েছে ৪৬ লাখ ২১ হাজার।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, দেশের মোট জনগোষ্ঠীর ১৪ লাখ নারী এক কোটি ৯৫ লাখ অর্থ্যাৎ প্রায় ১২ শতাংশের বেশি মৎস্য সেক্টরের বিভিন্ন কার্যক্রমে নিয়োজিত। গত ৬ বছরে বার্ষিক গড়ে অতিরিক্ত ৬ লাখের গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর এ খাতে কর্মসংস্থান রয়েছে।

জাতীয় পার্টির ফখরুল ইমামের প্রশ্নের জবাবে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন জানান, সরকারি কর্মচারী (আচরণ) বিধিমালা অনুযায়ী সরকারি চাকুরিতে যোগদান ও প্রতি ৫ বছর পর পর সরকারি কর্মচারীদের সম্পদের হিসাব দাখিল কার্যক্রম চলমান আছে। বর্তমানে নতুন করে সরকারি কর্মচারী (আচরণ) বিধিমালার সংশোধনী চূড়ান্তকরণের কার্যক্রম চলমান রয়েছে। এটি চূড়ান্ত হলে তার আলোকে সরকারি কর্মচারীদের সম্পদের তথ্য ব্যবস্থাপনার বিষয়টি পরিচালিত হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়:
x