বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৭:১৮ পূর্বাহ্ন

ঢাবি ছাত্রলীগ নেত্রীরা মুরাদকে ক্ষমা চাইতে বললেন

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০২১

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হলের ছাত্রলীগ নেত্রীরা প্রতিমন্ত্রী মুরাদকে ক্ষমা চাইতে বলেছেন। তার উক্তি মেনে নেওয়ার মতো নয় বলে মন্তব্য করেছেন তারা। একই সঙ্গে দলীয় ব্যবস্থা না নিলে সেটি ঠিক হবে না বলে মনে করছেন তারা।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সহ-সভাপতি এবং কবি সুফিয়া কামাল হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক তিলোত্তমা শিকদার বলেন, বঙ্গবন্ধুর প্রতি যাদের ভালোবাসা-শ্রদ্ধা আছে তাদের কেউ প্রতিমন্ত্রী মুরাদকে সমর্থন করতে পারে না।

নারীর প্রতি ‘অবমাননাকর’ ও ‘বর্ণবাদী’ মন্তব্য ঘিরে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়া তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানকে প্রত্যাখ্যান করলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ছাত্রলীগের নারী নেত্রীরা। তারা বলছেন, নারীর প্রতি অসম্মানজনক মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চাইতে হবে মুরাদকে।

নারীর প্রতি ‘অবমাননাকর’ ও ‘বর্ণবাদী’ মন্তব্য করে আগে থেকেই তীব্র সমালোচনার মধ্যে আছেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান। এর মধ্যে একটি ফোনালাপ ফাঁস হওয়ার পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নতুন করে তোপের মুখে পড়েন তিনি।

তীব্র ক্ষোভ ও সমালোচনার মধ্যে সোমবার রাতে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের জানান, মুরাদকে মঙ্গলবারের মধ্যে পদত্যাগের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

গণমাধ্যমে এসে প্রতিমন্ত্রীর বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন ছাত্রলীগ শামসুন নাহার হল শাখার সাধারণ সম্পাদক জিয়াসমিন শান্তা। নিজের ফেসবুকে লেখা স্ট্যাটাসে এই ছাত্রলীগ নেত্রী বলেন, ‘রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ আসনে বসা কোন ব্যক্তির মুখের ভাষার এই শ্রী শুনে মনে হচ্ছে আমরা দেউলিয়া হওয়ার দ্বারপ্রান্তে দাঁড়িয়ে আছি। এসব নিয়ে কথা বলার রুচি আসলেই নাই। কিন্তু ডোন্ট কেয়ার মুডে থাকলে বা নীরব থাকলে সমাজের অতি বুঝদার শ্রেণী মনে করে অপরাধী, তাই হয়ত চুপ মেরে আছে।’

শান্তা বলেন, ‘প্রতিমন্ত্রী সাহেব, চাওয়া বা যোগ্যতার চেয়ে বেশি পেয়ে গেছেন। তাই হজম না হয়ে বদহজম হওয়াতেই এসব কথাবার্তা বলছেন। আপনার রিহ্যাবে যাওয়া উচিত।’

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়: