শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০, ০৫:০৯ অপরাহ্ন

না ফেরার দেশে ভারতের সাবেক রাষ্টপ্রতি প্রণব মুখার্জি

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : ৩১ আগস্ট, ২০২০
  • ৫৯ বার পঠিত

ভারতের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জি আর নেই। গত কয়েকদিন কোমাচ্ছন্ন থাকার পর অবশেষে লড়াই শেষ। সোমবার সকাল থেকেই শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে শুরু করে।

এদিন ছেলে অভিজিৎ মুখোপাধ্যায় ট্যুইট করে বাবার মৃত্যুর খবর প্রকাশ করেন। তিনি লিখেছেন, আরআর হাসপাতালের চিকিৎসকদের সবরকমের চেষ্টা সত্বেও চলে গেলেন বাবা। এদিন হাসপাতালেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর।

গত কয়েকদিন ধরেই হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন প্রণব মুখোপাধ্যায়। করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন তিনি। এরপর তার একটি অস্ত্রোপচারও হয়। তারপর থেকেই শারীরিক অবস্থার ক্রমশ অবনতি হচ্ছিল তার। প্রত্যেকদিন তাঁর স্বাস্থ্যের আপডেট দেওয়া হচ্ছিল হাসপাতালের তরফ থেকে। তাঁর এই প্রয়ান দেশের এক বড় ক্ষতি বলে মনে করছেন অনেকেই।

ইতিমধ্যেই শোকপ্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ।

পড়ে গিয়ে মাথায় চোট পাওয়ায় হাসপাতালে অস্ত্রোপচার করাতে গিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু তার করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ে। নিজেই সেই খবর টুইট করে জানান দেশবাসীকে। সেদিনই ৮৪ বছরের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতির মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচার হয়। অস্ত্রোপচার করে জমাট বাঁধা রক্ত বের করে দেওয়া হয়।

কিন্তু অস্ত্রোপচারের পর থেকেই ভেন্টিলেশনে ছিলেন বর্ষীয়ান এই রাজনীতিবিদ। প্রথম বাঙালি রাষ্ট্রপতির আরোগ্য কামনায় কলকাতা-সহ রাজ্যের একাধিক জেলায় প্রার্থনাও হয়।

প্রণববাবুর পৈতৃক ভিটে বীরভূমের কীর্ণাহারেও তাঁর দ্রুত সুস্থতা কামনায় যজ্ঞ হয়। সেখানে অংশ নিয়েছিলেন তাঁর বোন এবং পরিবারের অন্য সদস্যরা। ২০১৯ সালের ৮ অগাস্ট ‘ভারতরত্ন’ সম্মানে ভূষিত হয়েছেন প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়।

প্রথম বাঙালি রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়। ২০১২ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত রাষ্ট্রপতি পদে ছিলেন তিনি। তবে গত কয়েকদিনে তাঁর রাজাজি মার্গের ঠিকানায় মানুষের আনাগোনা কমেছিলে অনেকটাই। অতিমারীর জন্যই এই সতর্কতা নিয়েছিলেন তিনি। সাধারণ মানুষের সঙ্গে কথাবার্তা বন্ধ করে দিয়েছিলেন। হাতেগোনা কয়েকজন মানুষের সঙ্গেই দেখা করতেন তিনি।

সূত্র: কলকাতা ২৪।

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..