বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ০৬:৫৫ পূর্বাহ্ন

পরিমল থিয়েটারের জমি নিয়ে মামলা আদালতের নিষেধাজ্ঞা

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১১ অক্টোবর, ২০২০

কুষ্টিয়ায় শহরের বাণিজ্যিক এলাকায় অবস্থিত শত বছরের পুরাতন ঐতিহ্যবাহী নাট্য সংগঠন পরিমল থিয়েটারের নিজস্ব মালিকানা সম্পত্তি জালিয়াতি করে রেজিষ্ট্রি করা হয়েছে মর্মে আদালতে যুদ্ধাহত বীরমুক্তিযোদ্ধা সানোয়ার উদ্দিন রিন্টু বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। পরিমল থিয়েটারের জমি সংক্রান্ত বিষয় ও উদ্ভূত পরিস্থিতির নিষেধাজ্ঞা জারি প্রসঙ্গে প্রতিষ্ঠানের সভাপতি যুদ্ধাহত বীরমুক্তিযোদ্ধা সানোয়ার উদ্দিন রিন্টুকে প্রশ্ন করা হলে তিনি প্রতিবেদককে বলেন, গত ১৭/০৭/২০১৪ তারিখে সাজ্জাদ হোসেন সবুজ সাধারণ সম্পাদকের নিকট হতে কুষ্টিয়া সদর সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে ভুয়া রেজুলেশনের মাধ্যমে অস্বাভাবিক পরিস্থিতিতে কুষ্টিয়ায় শহরের বাণিজ্যিক এলাকায় অবস্থিত শত বছরের পুরাতন ঐতিহ্যবাহী নাট্য সংগঠন পরিমল থিয়েটারের নিজস্ব মালিকানা সম্পত্তি জালিয়াতি করে অফিসে ভুয়া রেজুলেশন তৈরী করে ০.০৮৭১৬৫ একর জমি খোস কবলা রেজিষ্ট্রি করে নেয়।
উক্ত দলিলে আমাকে দিয়ে কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে মুক্তিযোদ্ধা কেবিন হতে ফ্লোর ও স্বাদ বিক্রির নামে প্রতিষ্ঠান নামে সাধারণ সম্পাদক আবু তাহেরকে সনাক্ত করে দেই। যেহেতু শেখ আবু তাহের প্রতিষ্ঠানের সাধারণ সম্পাদক আমি এই মর্মে তাকে শনাক্ত করেছি মাত্র। কারণ আমি তখন লিভার রোগে আক্রান্ত হয়ে গুরুতর অবস্থায় কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে ভর্তি ছিলাম।
আরো জানা যায় সাজ্জাদ হোসেন সবুজ জমি রেজিস্ট্রি সংক্রান্ত বিষয়টি অত্যন্ত ধূর্ততার সাথে গোপন করে রাখেন। তারপর ২০১৫ সালের ১৫ আগষ্ট শেখ সাজ্জাদ হোসেন সবুজ নিখোঁজ হওয়ার পর বিষয়টি জানাজানি হয়। পরবর্তীতে পরিমল থিয়েটারের পক্ষ থেকে ভূয়া রেজিষ্ট্রি বাতিল ও পাওনা টাকা আদায়ের আরজি জানিয়ে কুষ্টিয়া যুগ্ম জেলা জজ আাদালতে মামলা দায়ের করা হয়। যার নং ৪৬/১৭। উভয় পক্ষের শুনানীর পর গত ৪ই অক্টোবর ২০২০ ইং তারিখে বিজ্ঞ আদালত বাদীপক্ষের অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা দিয়েছেন। মামলাটি বর্তমানে চলমান রয়েছে।
পরিমল থিয়েটার এবং আমার পরিবারকে নিয়ে গভীর ষড়যন্ত্র চলছে এবং এই ষড়যন্ত্রের মধ্যে কেউ কেউ ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করছেন। বিষয়টি কুষ্টিয়ার সাংস্কৃতিক মহল এর তীব্র নিন্দা এবং প্রতিবাদ জানিয়েছেন, তারা এটা বলেন যে এ বিষয়টি নিয়ে কোন ধরনের ষড়যন্ত্র করা হলে তারা বসে থাকবেন না প্রয়োজনে আন্দোলনের কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়: