শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ০৬:৫০ অপরাহ্ন

প্রথম পর্যায়ে জবিতে টিকা নিলেন ১৯৬০ জন

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ৩১ অক্টোবর, ২০২১

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) মেডিকেল সেন্টারে স্থাপিত অস্থায়ী টিকা কেন্দ্রে প্রথম পর্যায়ে মোট ১৯৬০ জন করোনার টিকা নিয়েছেন। নির্দিষ্ট সময় পর দ্বিতীয় পর্যায়ে দ্বিতীয় ডোজের টিকাও এই কেন্দ্রেই দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রকল্যাণ পরিচালক।

বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টার সূত্রে জানা যায়, প্রথমদিনে ১০৫, দ্বিতীয় দিন ২৮০, তৃতীয় দিনে ৩৫০, চতুর্থ দিনে ৩৯৫, পঞ্চম দিনে ৫০০ জন টিকা গ্রহণ করেন। এরপর শিক্ষার্থীদের চাহিদার ভিত্তিতে টিকা গ্রহণ কার্যক্রমের সময় এক দিন বাড়ানো হয়। রোববার ষষ্ঠ ও শেষ দিনে ৩৩০ জনসহ মোট ১৯৬০ জন টিকা গ্রহণ করেছেন।

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রকল্যাণ পরিচালক অধ্যাপক ড. আইনুল ইসলাম বলেন, আমাদের এই টিকা কেন্দ্রে পাঁচ দিন টিকা প্রদানের কথা ছিল। সেই পাঁচ দিনে আমরা মোট ১৬৩০ জনকে টিকা দিয়েছিলাম। এরপর দেখি আরো অনেক শিক্ষার্থী টিকা নিতে চায়, সেজন্য একদিন সময় বাড়ানো হয়েছিল।

ছাত্রকল্যাণ পরিচালক আরও বলেন, যাদের এনআইডি ছিল তারা কেন্দ্রে এসে স্পট রেজিষ্ট্রেশন করেই প্রথম ডোজের টিকা নিতে পেরেছেন। অনেক শিক্ষার্থী বাইরে থেকে প্রথম ডোজের টিকা নিয়ে এসে এখানে দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন। টিকার জন্য দ্রুত এনআইডি পেতে ক্যাম্পাসেই আবেদন কেন্দ্র স্থাপন করেছিলাম। সেখানেও অনেক শিক্ষার্থী আবেদন করেছে।

দ্বিতীয় ডোজের টিকার ব্যাপারে তিনি বলেন, যেহেতু ক্যাম্পাসেই প্রথম ডোজ দেয়া হয়েছে , নির্দিষ্ট সময় পর দ্বিতীয় ডোজও এখানেই দেয়া হবে। আমরা আবার কেন্দ্র স্থাপন করবো। আর যারা এখন এনআইডি রেজিষ্ট্রেশন করেছে তারা সেসময়ে এনআইডি পেয়ে গেলে তারাও এখান থেকে প্রথম ডোজের টিকা নিতে পারবে। সেক্ষেত্রে তাদেরকে দ্বিতীয় ডোজ বাইরের কোনো কেন্দ্র থেকে নিতে হবে।

এদিকে রোববার জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারে কোভিড ১৯ টিকাদান কার্যক্রমের প্রথম পর্যায়ের সমাপনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

এ উপলক্ষ্যে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. ইমদাদুল হক এর অফিস কক্ষে ঢাকা জেলা সিভিল সার্জন এর কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ সৌজন্য স্বাক্ষাতে মিলিতি হন।

এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মোঃ ওহিদুজ্জামান, পরিচালক (ছাত্র-কল্যাণ), আইসিটি সেল ও মেডিকেল সেন্টার এর কর্মকর্তাসহ আরো অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে গত ২১ অক্টোবর বিশ্ববিদ্যালয় দিবসের দিনে কোভিড ১৯ টিকাদান কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। টিকা কেন্দ্র উদ্বোধন করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. ইমদাদুল হক। এরপর ২৫ অক্টোবর থেকে শিক্ষার্থীদের টিকাদান কর্মসূচি উন্মুক্ত করা হয়। কেন্দ্রটিতে চীনের তৈরি সিনোফার্মের (ভেরোসেল) টিকা দেয়া হয়েছে। রোববার শেষ দিনে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেল সেন্টারে কোভিড ১৯ টিকা ক্যাম্পের মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান শিক্ষার্থী এবং কর্মরত শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের টিকা প্রদানের প্রথম ডোজ-এর কার্যক্রম শেষ হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়:
x