বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ০২:২৫ পূর্বাহ্ন

বরগুনায় ব্রীজ ভেঙ্গে ইট বোঝাই ট্রলি নদীতে

বরগুনা প্রতিনিধি
  • আপডেট টাইম : ১০ জুন, ২০২০
  • ৫১ বার পঠিত

বরগুনার আমতলী উপজেলার আমড়াগাছিয়া ব্রীজ ভেঙ্গে ইট বোঝাই ট্রলি নদীতে পড়ে গেছে। বুধবার (১০জুন) সকালে ইট বোঝাই ট্রলি
নিয়ে ব্রীজের উঠার পর ব্রীজ ভেঙে নদীতে পড়ে যায়। ঘটনাটি ঘটেছে আমড়াগাছিয়া গ্রামে। এ ঘটনায় ট্রলির চালক রাসেল ও হেল্পার ইয়াসিন আহত হয়।

জানা গেছে, ২০০৬ সালে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগ আমড়াগাছিয়া নদীর বাজার সংলগ্ন স্থানে আয়রন ব্রীজ নিমার্ণ করে। নিমার্ণের ১০ বছরের মাথায় ২০১৬ সালে ব্রীজটির মাঝখানের অংশ ভেঙ্গে পড়ে। ব্রীজটি ভেঙ্গে পড়ায় কুকুয়া এবং গুলিশাখালী ইউনিয়নের মানুষের যোগাযোগ ব্যবস্থা বিছিন্ন হয়ে যায়। তাৎক্ষনিক ওই ব্রীজের ভাঙ্গা অংশ স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগ মেরামত করে। মেরামত করার পরে ওই ব্রীজ দিয়ে বড় যানবাহন চলাচল নিষিদ্ধ করে দেয় স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগ। কিন্তু প্রকৌশল বিভাগের নিষেধ উপক্ষো করে ট্রাক ও ট্রলির মালিকরা ওই ব্রীজ দিয়ে যানবাহন চলাচল করতে থাকে। এতে দিন দিন ব্রীজ নড়বড়ে হয়ে পড়ে। মেরামতের চার বছরের মাথায় ব্রীজটি পুনরায় ভেঙ্গে পড়েছে। এতে দুইটি ইউনিয়নের অন্তত ত্রিশ হাজার মানুষের যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ হয়ে গেছে।

স্থানীয়রা জানান, ব্রীজের মধ্যের অংশ ভেঙ্গে নড়ীতে পড়ে আছে। ট্রলিটি নদীতে তলিয়ে গেছে ওই ট্রলিতে থাকা চালক রাসেল ও হেল্পার ইয়াসিন আহত হয়। পরে ওই দুজনকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ধারনা করা হচ্ছে ট্রলিটি ধারন ক্ষমতার চেয়ে কয়েকগুন বেশি মাল বহন করায় এ ব্রীজ ভেঙ্গে পরেছে। দ্রুত ওইস্থানে গাডার্র ব্রীজ নিমার্ণের দাবী জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

আমতলী উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ আল মামুন বলেন, ধারনক্ষমতার চেয়ে ভারী যানবাহন চলাচল করায় ব্রীজ ভেঙ্গে পড়েছে। ট্রলির মালিককে ব্রীজ মেরামত করে দিতে হবে। তিনি আরো বলেন, ওইখানে গার্ডার ব্রীজ নিমার্ণের প্রস্তাব স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয় পাঠানো আছে। অনুমোদন হলে গার্ডার ব্রীজ নিমার্ণ করা হবে।

আমতলী উপজেলা নিবার্হী অফিসার মনিরা পারভীন বলেন, ভাঙ্গা ব্রীজ এলাকা পরিদর্শন করে মানুষের যেনো দুর্ভোগ পোহাতে না হয় সেই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..