বুধবার, ১৭ অগাস্ট ২০২২, ০৭:০৬ অপরাহ্ন

ভোজ্যতেলের দাম নিয়ন্ত্রণের বাইরে, ভোক্তার নাভিশ্বাস!

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ১৮ অক্টোবর, ২০২১

নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের অন্যতম ভোজ্যতেল। এর মূল্যবৃদ্ধিতে অস্বস্তিতে পড়ে সাধারণ মানুষ। দিনে দিনে নাগালের বাইরে চলে যাচ্ছে এই প্রয়োজনীয় পণ্যের দাম। বিশ্ববাজারের দোহাই তুলে ব্যবসায়ীদের আবদার রাখতে এমন অনিয়ন্ত্রিতভাবে দাম বাড়ছে বলে মনে করছেন ভোক্তারা। দৈনন্দিন খরচ জোগাতে হিমশিম খাচ্ছে মধ্যবিত্ত পরিবার। আর নিম্নবিত্তরাতো হিসেবের বাইরে চলে গেছেন। দিনে দিনে বাড়ছে অভাব। খরচ বাড়লেও আয় বাড়েনি কারো। বরং কমেছে অনেকাংশে। এমন পরিস্থিতিতে আবারো লিটার বোতলজাত ও খোলা সয়াবিন তেলের দাম ৭ টাকা করে বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে। অথচ মাত্র কয়েকদিন আগে লিটার প্রতি বাড়িয়ে বোতলজাত প্রতি লিটার তেল করা হয়েছিল ১৫৩ টাকা।

গতকাল রোববার (১৭ অক্টোবর) সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে নিত্যপণ্যের মজুদ পরিস্থিতি, আমদানি ও দাম নির্ধারণ সংক্রান্ত বৈঠকে এ প্রস্তাব করা হয়। বৈঠক শেষে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (আইআইটি) এ.এইচ.এম. সফিকুজ্জামান সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

অতিরিক্ত সচিব বলেন, ওনাদের (তেল ব্যবসায়ী) প্রস্তাব ছিল বোতলজাত লিটারপ্রতি তেল ১৬৮ টাকা করার। ট্যারিফ কমিশন একাধিকবার বসে অ্যানালাইসিস করে ১৬২ টাকা প্রস্তাব করেছে। এটা ছিল সেপ্টেম্বর মাসের অ্যাভারেজ রিপোর্ট। আজ দীর্ঘক্ষণ আলোচনা করে প্রতি লিটার বোতলজাত তেলের দাম ঠিক করা হয়েছে ১৬০ টাকা। যেটার আগে দাম ছিল ১৫৩ টাকা।

বর্তমানে খোলা সয়াবিন তেল প্রতি কেজি ১২৯ টাকা। ৭ টাকা দাম বাড়িয়ে ১৩৬ টাকা করার প্রস্তাব করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

অতিরিক্ত সচিব জানান, ৫ লিটারের বোতল ৭২৮ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৭৬০ এবং পাম তেল ১১৬ টাকা থেকে বাড়িয়ে ১১৯ টাকা করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়:
x