শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ০৭:৩৩ পূর্বাহ্ন

মজুরিহীন কাজ করেন নারী, হিসেবেই আসে না

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২১ নভেম্বর, ২০২১

পুরুষ ঘরের বাইরে কাজ করে বলে সবার চোখে ধরা পড়ে। নারীদেরও এখন ঘরের বাইরে অবাদ বিচরণ। দুই জনই যখন কাজ করে। তখন নারী বাইরে কাজ করে এসেও আমার ঘরের কাজে হাত দেওয়া লাগে। এভাবেই চলে আসছে। যেখানে ঘরের কাজের হিসেব কেউ রাখে না আর রাখার চিন্তাও করে না। এমন মজুরিহীন কাজের চাপে নারীদের অনেক সময় থাকতে হয় বিমর্ষ।

মজুরিহীন অদৃশ্য কাজের চাপ কমাতে পারলে নারীদের শ্রমবাজারে অংশগ্রহণ বাড়ানো সম্ভব। দেশের ১৫ থেকে ২৯ বছর বয়সী নারীরা দৈনিক ৫ দশমিক ৯৩ ঘণ্টা মজুরিবিহীন গৃহস্থালি কাজ করেন। অন্যদিকে একই বয়সী পুরুষেরা গড়ে ১ দশমিক ৪৯ ঘণ্টা কাজ করেন।

বাসাবাড়িতে রান্নাবান্না, গৃহস্থালির কাজ, বাজার সদাই, সন্তানদের যত্ন — এসব কাজ করে থাকেন নারীরা। কিন্তু তারা মজুরি পান না। এগুলো নারীর অদৃশ্য শ্রম। প্রাপ্তবয়স্ক নারীরা প্রতিদিন গড়ে প্রায় ৬ ঘণ্টা মজুরিছাড়া গৃহস্থালির কাজ করেন।

অন্যদিকে পুরুষেরা বয়সভেদে গড়ে দৈনিক দেড় থেকে দুই ঘণ্টা এ কাজ করেন। অর্থাৎ নারীরা পুরুষের চেয়ে অন্তত তিন গুণ বেশি শ্রম দেন।

গতকাল শনিবার সাউথ এশিয়ান নেটওয়ার্ক অন ইকোনমিক মডেলিং (সানেম) ও মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন আয়োজিত ‘নীতিনির্ধারণে কেয়ার ইকোনমির অন্তর্ভুক্তি”শীর্ষক ওয়েবিনারে এ তথ্য তুলে ধরা হয়।

ওয়েবিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক এবং সানেমের গবেষণা পরিচালক ড. সায়মা হক বিদিশা।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়: