বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ০৬:৩৯ পূর্বাহ্ন

মাধবপুরে ইউ পি,যুবলীগ নেতার ওপর সন্ত্রাসী হামলা অস্ত্রের মুখে টাকা ছিনতাই

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ১৯ অক্টোবর, ২০২০

হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলা ৯নং নোয়াপাড়া ইউনিয়ন যুবলীগের নেতা শেখ মোহাম্মদ বাহার মিয়ার ওপর (১৯ অক্টোবর) সোমবার দিনে দুপুর বেলায় সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে। এক কুখ্যাত সন্ত্রাসীর নেতৃত্বে এ হামলা চালানো হয় বলে অভিযোগ।

শেখ মোহাম্মদ বাহার গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার কর্তিক অনুমোদিত শাহপুর নতুন বাজার নিউ মর্ডান সমাজ কল্যান ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও নোয়াপাড়া ইউনিয়ন যুবলীগের বিপ্লবী যুগ্ম আহ্বায়ক , শেখ মোহাম্মদ বাহার মিয়ার ভাষ্যমতে, জানাগেছে সোমবার দুপুর আনুমানিক ১টার দিকে নোয়াপাড়া জনতা ব্যাংক থেকে ২১ হাজার টাকা তুলে মোটরসাইকেলে করে শাহপুরের উদ্দেশ্য বাসায় ফিরছিলেন তিনি।

পথে করড়া নামকস্হানে একটি পয়েন্টে সন্ত্রাসী সায়েদ মিয়ার নেতৃত্বে ছয়-সাতজনের একটি দল তাঁর পথ আটকায়। মুহূর্তের মধ্যে দলটি তাঁর ওপর অতর্কিতভাবে হামলা চালায়। তারা রড ও পাইপ দিয়ে তাঁকে পেটাতে শুরু করে। একপর্যায়ে তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়লে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন তাঁকে উদ্ধার করে তাৎক্ষণিক একটি চিকিৎসা কেন্দ্রে নিয়ে যান

শেখ মোহাম্মদ বাহার মিয়ার দাবি, তিনি হামলাকারীদের একজনকে চিনতে পেরেছেন। ওই হামলাকারী হলেন নোয়াপাড়া ইউনিয়নের করড়া গ্রামের কুখ্যাত সন্ত্রাসী সায়েদ মিয়া।

শেখ মোহাম্মদ বাহার বলেন- আমি করড়া গ্রামের সায়েদ মিয়াকে চিনিনা , তবে শুনেছি সে অনেক বড় সন্ত্রাসী ওর সাথে আমার কোনো ধরণের দ্বন্দ্ব নেই আজ টাকার ছিনতাই করে দিনে দুপুর বেলায় , সেই আমাকে এমন ধরণেন আক্রমন করতে পারে আমি ভাবতেই পারেনি ।

ঘঠনা স্হলে উপস্তিত হয়ে তার বন্ধু, করড়া গ্রামের কৃতি সন্তান মোঃ শিবলু বলেন-আমি দুপুর বেলায় পারিবারিক একটি কাজে নোয়াপাড়া বাজারে যাওয়ার উদ্দেশ্যে রউনা দিয়েছিলাম, রাস্তাতে আসার মাত্রই দেখি এই অবস্থা , আল্লাহ মেহেরবান আমি সময় মত ঘঠনাস্হলে উপস্থিত না আমার বন্ধু শেখ মোহাম্মদ বাহারের পরিনতি আরও ভয়াবহ হতো ।

এই ঘঠনা নিয়ে মাধবপুর থানায় , একটি অভিযোগ হয়েছে বলে জানাগেছে । মাধবপুর থানার অফিসার ইনর্চাজ মোঃ ইকবাল হোসাইন বলেন,বাহারের উপর সন্ত্রাসী ও ছিনতাই হামলার অভিযোগ পেয়েছি ঘঠনা সত্যতা নিশ্চিত করে আমরা ব্যবস্হা নেব ।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়: