রবিবার, ০১ অগাস্ট ২০২১, ০৮:৫৮ অপরাহ্ন

রামেক হাসপাতালে আরও ১০ জনের মৃত্যু

অর্থনীতি ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : রবিবার ২৭ জুন, ২০২১
  • ৭২ বার পঠিত

করোনা ও উপসর্গ নিয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে আরও ১০ জন মারা গেছেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার (২৬ জুন) সকাল ৯টা থেকে রোববার (২৭ জুন) সকাল ৯টার মধ্যে হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন ওয়ার্ডে তারা মারা যান।

এদের মধ্যে একজন করোনায়, আটজন উপসর্গ নিয়ে এবং একজন করোনা থেকে মুক্ত হওয়ার পর মারা গেছেন। এই ১০ জনের মধ্যে চারজনেরই বাড়ি করোনার হটস্পট রাজশাহী জেলায়। এ ছাড়া নাটোরের চারজন এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জের দুজন মারা গেছেন।

রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় রামেক হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন ওয়ার্ডে ১০ জন মারা গেছেন। এদের মধ্যে সর্বোচ্চ তিনজন মারা গেছেন হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে (আইসিইউ)। হাসপাতালের ১৬ এবং ২৫ নম্বর ওয়ার্ডে দুজন করে মারা গেছেন। এছাড়া ১, ৩ এবং ২৯/৩০ নম্বর ওয়ার্ডে একজন করে মারা গেছেন।

এই এক দিনে করোনা সংক্রমণে মারা যাওয়া একমাত্র রোগীর বাড়ি নাটোরে। মারা যাওয়া করোনা নেগেটিভ রোগী ছিলেন রাজশাহীর বাসিন্দা। করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া আটজনের মধ্যে রাজশাহী ও নাটোরের বাসিন্দা তিনজন করে এবং দুজন চাঁপাইনবাবগঞ্জের বাসিন্দা। স্বাস্থ্যবিধি মেনে তাদের মরদেহ দাফনের পরামর্শ দিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, ৩৫৭ শয্যার রামেক হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ভর্তি রয়েছেন ৪৩৪ জন রোগী। এর মধ্যে করোনা শনাক্ত রোগী রয়েছেন ২০৬ জন।

করোনার উপসর্গ নিয়ে ভর্তি রয়েছেন ১৮৮ জন। হাসপাতালে করোনা নেগেটিভ রোগীর সংখ্যা ৪০। গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৫৫ জন। একই সময়ের মধ্যে হাসপাতাল ছেড়ে গেছেন আরও ৫৫ জন।

গত ১ জুন থেকে ২৬ জুন পর্যন্ত রামেক হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন ইউনিটে মারা গেছে ২৯১ জন। এর মধ্যে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ১৪৮ জনের এবং উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন ১৩৮ জন। এ ছাড়া করোনা নেগেটিভ হয়েও মারা গেছেন পাঁচজন।

এদিকে ২৪ জুন রামেক হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এটিই ছিল হাসপাতালে মৃত্যুর সর্বোচ্চ রেকর্ড।

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..