বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৫:৪৪ পূর্বাহ্ন

শীতেও কমলো না সবজির দাম!

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০২১

প্রতিবছর শীতের সময় সবজির দাম কমাটা স্বাভাবিক বিষয়। কিন্ত এবার সেই স্বাভাবিক বিষয়টিই অস্বাভাবিকভাবে হয়ে উঠলো না। সব পণ্যের দামের সঙ্গে সঙ্গে তাল মিলিয়ে কমার পরিবর্তনে দাম বেড়েছে সবজির। তেলের দাম বৃদ্ধির কথা বলে বাড়ানো হয়েছে কয়েক দফা। আর করোনার ক্ষতি পোষানোর কথা বলেও স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে দাম বেশি রাখছে দোকানিরা। তবে কৃষকরা খুব বেশি দাম পাচ্ছে না বলে অভিযোগ রয়েছে। আজ শুক্রবার (৩ ডিসেম্বর) রাজধানীর বিভিন্ন খুচরা বাজার ঘুরে দেখে গেছে, আগের চেয়ে সবজির দাম কিছুটা কমলেও এখনও চড়া সবজির বাজার।

কয়েক মাস ধরে বাজারে প্রতিটি সবজি বিক্রি হয়েছে চড়া দামে। নতুন সবজির বাজারে আসার পর দাম কমবে এমন আভাস দিয়েছিলেন বিক্রেতারা। কিন্তু খুব বেশি কমেনি সবজির দাম। শীত পড়তে শুরু করলেও এখনও বেশিরভাগ সবজির দাম আগের মতোই রয়ে গেছে।

বাজারে সিম প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকায়, কাঁচা মরিচ ৯০ থেকে ১০০ টাকা কেজিতে, গাঁজর ৮০ টাকায়, করলা ৬০ টাকায়, বাঁধা কপি ৪০ টাকায় (প্রতি পিস মাঝারি), ফুলকপি ৫০ টাকায় (প্রতি পিস মাঝারি), মূলা ৪০ টাকায়, নতুন আলু ৮০ টাকায়, সাধারণ আলু ২৫ থেকে ৩০ টাকায়, বরবটি ৬০ টাকায়, বেগুন ৫০ টাকায়, টমেটো ১৪০ টাকায়, ঢেঁড়স ৬০ টাকায়, শসা ৪০ টাকায়, পেঁপে ৩০ টাকায়, শালগম ৬০ টাকায়, পটল ৬০ টাকায়, পেঁয়াজ ৬০ থেকে ৬৫ টাকায় এবং ডিম প্রতি ডজন বিক্রি হচ্ছে ১০৫ টাকায়।

রাজধানীর রামপুরা বাজারে বাজার করতে আসা রাজ্জাক বলেন, শীত প্রায় চলে এসেছে তবু বাজারে সবজির দাম কমেনি। দুই-একটা ছাড়া বেশিরভাগ সবজির দাম এখনও ৫০ টাকার বেশি। অন্য বছরগুলোতে এ সময় সবজির দাম বলতে গেলে প্রায় অর্ধেক ছিল। গত পাঁচ/ছয় মাস ধরে অতিরিক্ত দামে সবজি কিনতে হচ্ছে আমাদের।

একই অভিযোগ করলেন মধ্যবাড্ডায় বাজার করতে আসা গার্মেন্টস কর্মী সজিবুর রহমান। তিনি বলেন, শীতের সবজি ফুলকপির পিস এখনও ৫০ টাকায় কিনতে হচ্ছে। পটল, বরবটি, ঢেঁড়স এখনও ৬০ টাকা কেজিতে কিনতে হচ্ছে। তাহলে সবজির দাম কমল কোথায়? শীতের সময় শুরু হয়ে গেছে। এ সময় সবজি অর্ধেক দামে বিক্রি হওয়ার কথা। তবুও দাম চড়া।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়: