শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ১১:২৮ অপরাহ্ন

স্বাস্থ্যের ভুত বের করুন

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২ নভেম্বর, ২০২১

দেশের দুর্নীতি থাকলে এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ায় অনেকটা কমে এসেছে। তবে সময়ের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সময়ে স্বাস্থ্যখাত নিয়ে ওঠে নানান কথা। বের হয়ে আসে বিভিন্ন তথ্য। ফাঁস হয়ে যায় কিছু তথ্য। আবার গায়েব হয়ে যায় গুরুত্বপূর্ণ অনেক ফাইল।

ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ বা টিআইবির জরিপেও উঠে এসেছে দেশের বিভিন্ন দূর্নীতির তথ্য। দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) তদন্তেও উঠে এসেছে অনেক কর্মকর্তার নাম।

করোনার সময় রোগীদের স্বাস্থ্যসেবায় গৃহীত কর্মসূচিতেও ব্যাপক দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছিল। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সাবেক একজন ডিজিসহ ছয় কর্মকর্তার বিরুদ্ধে সম্প্রতি দুদক আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেছে। আরো অনেকের বিরুদ্ধে অভিযোগের তদন্ত চলছে।

তদন্তের সেই রিপোর্ট পাওয়ার আগেই স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে ১৭টি গুরুত্বপূর্ণ নথি চুরি হয়ে গেছে। বিষয়টি সর্বমহলে ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দুর্নীতি নিয়ে গণমাধ্যমে বহু প্রতিবেদন হয়েছে। করোনার ভুয়া টেস্ট ও সার্টিফিকেট দেওয়া নিয়ে রিজেন্ট হাসপাতাল ও তাঁর মালিক সাহেদ ব্যাপক আলোচিত হয়েছিলেন। গ্রেপ্তারকৃত সেই সাহেদের সঙ্গে মন্ত্রণালয়ের অনেকের যোগসাজশের বিষয়টিও আলোচনায় এসেছিল। সাবেক ডিজিসহ আরো কিছু কর্মকর্তার বিরুদ্ধে করোনা চিকিত্সার জন্য বরাদ্দ করা সরকারি অর্থ আত্মসাতের অভিযোগও আছে।

বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে গায়েব হওয়া ফাইলের সঙ্গেও বড় দুর্নীতির যোগসাজশ রয়েছে। তাই এর কারণ উদঘাটনসহ জড়িতদের আইনের আওতায় আনতেই হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়: