বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৫:৩৬ পূর্বাহ্ন

হয়রানি বন্ধে রেলের টিকিট যাত্রীর নিজস্ব নামে বিক্রির সুপারিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ৪ আগস্ট, ২০২২

হয়রানি বন্ধে রেলের টিকিট জাতীয় পরিচয়পত্র দেখে যাত্রীর নিজস্ব নামে বিক্রির সুপারিশ করেছে সংসদীয় কমিটি। কমিটির বৈঠকে সম্প্রতি চট্টগ্রামের মীরসরাইয়ে রেল দুর্ঘটনার কারণ জানতে চাওয়া হয়েছে সংসদীয় কমিটি। এ ধরনের দুর্ঘটনা যাতে না ঘটে, সেজন্য রেলওয়েকে বাস্তবসম্মত পদক্ষেপ নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার রেলওয়ে মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির ওই বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন কমিটির সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী। বৈঠকে কমিটির সদস্য রেলপথ মন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন, আসাদুজ্জামান নূর, মো. শফিকুল আজম খাঁন, মো. সাইফুজ্জামান, নাছিমুল আলম চৌধুরী, গাজী মোহাম্মদ শাহনওয়াজ ও নাদিরা ইয়াসমিন জলি এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক শেষে কমিটির সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী বলেন, রেলের ওই দুর্ঘটনার বিষয়ে আমরা আলোচনা করেছি। কেন এই দুর্ঘটনা হলো, কীভাবে হলো, আর যাতে না হয়, সেসব বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। রেল তদন্ত করছে। দেখি সেখানে তারা কী পায়।

বৈঠকে রেলের টিকিট যাত্রীর নিজস্ব নামে জাতীয় পরিচয়পত্রের মাধ্যমে বিক্রির সুপারিশ করা হয়েছে জানিয়ে কমিটির সভাপতি বলেন, সহজ ডটকম কোম্পানির মাধ্যমে টিকিট কেনার ক্ষেত্রে যাত্রীকে যেন বেশি অর্থ ব্যয় করতে না হয়, সেজন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা িেনতে বলা হয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন জাতীয় ইভেন্ট (উৎসব ও পরীক্ষা) ইত্যাদির ক্ষেত্রে অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহন সক্ষমতার জন্য রেলের বিশেষ কোচ সংযোজনের জন্য বলা হয়েছে। এছাড়াও রেলের আয় বাড়াতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

কমিটি সূত্র জানায়, বৈঠকে দুর্ঘটনা রোধে রেলওয়েকে বাস্তসম্মত পদক্ষেপ নিতে বলা হয়েছে। রেল গেটগুলো অটোমেশন করা যায় কিনা, সে বিষয়ে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এ সময় জানানো হয়েছে, রেল দুর্ঘটনা তদন্তে একটি কমিটি গঠন করেছে রেলওয়ে। গত ২৯ জুলাই কোচিং সেন্টারের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের বহনকারী একটি মাইক্রোবাস লেভেল ক্রসিয়ে উঠে গেলে চট্টগ্রামমুখী মহানগর প্রভাতী ধাক্কা দেয়। এতে দুমড়েমুচড়ে যাওয়া ওই গাড়িতে থাকা ১৮ জনের মধ্যে ১১ জন ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়: