বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ০২:৩৬ অপরাহ্ন

নতুন বছরে বাসা ভাড়া বাড়ানোর পায়তারা বাড়িওয়ালাদের!

অর্থনীতি ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ১৭ ডিসেম্বর, ২০২১

নিউজটি শেয়ার করুন

রাজধানীতে থাকা অধিকাংশ মানুষের আয়ের সিংহ ভাগই চলে যায় বাসা ভাড়া দিতে। অথচ প্রতি বছরই বাড়িওয়ালারা বাসা ভাড়া বাড়ানোর জন্য প্রস্তুতি নিয়ে রাখে। বিভিন্ন ওসিলায় ভাড়া বাড়ালেও সেটি আর কমে না। অনেকটা দেশের দ্রব্যমূল্যের মতো। করোনার সময় কিছু বাড়িওয়ালা ভাড়া কমালেও এরইমধ্যে বাড়া বৃদ্ধির নোটিশ পৌছে দিয়েছেন ভাড়াটিয়াদের কাছে। এমন পরিস্থিতিতে রাজধানী আরো ফাকা হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হতে পারে বলে মনে করছেন অনেকে।

ভাড়াটিয়াদের অভিযোগ, বছর শেষের আগে রাজধানীতে শুরু হয় বাড়িভাড়া বাড়ানোর পাঁয়তারা। নতুন বছর থেকে মালিকরা ‘ইচ্ছেমতো’ বাড়িয়ে দেন ভাড়া। এক্ষেত্রে ভাড়াটিয়ারা যেন নিরুপায়। আয়ের সিংহভাগ খরচ করে তারা এ নগরে থাকেন কেবল জীবিকার তাগিদে।

নতুন বছরে ভাড়া বেড়ে যাওয়ার চিন্তায় বাসিন্দাদের কপালে ভাঁজ পড়েছে। তারা বলছেন, সবকিছুর দাম বাড়ছে, এর সঙ্গে বাড়িভাড়া বেড়ে গেলে এ শহরে থাকাই দায় হয়ে যাবে। অন্যদিকে বাড়ির মালিকদের যুক্তি, নিত্যপণ্যের দাম বাড়ার সঙ্গে ভাড়াটিয়াদের আয় বাড়ছে। সে কারণেই নতুন বছরে তারা ভাড়া বাড়াতে যাচ্ছেন।

ভোক্তাদের অধিকার নিয়ে কাজ করা সংগঠন কনজ্যুমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) এক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, গত ২৫ বছরে রাজধানীতে বাড়িভাড়া বেড়েছে প্রায় ৪০০ শতাংশ। একই সময়ে নিত্যপণ্যের যে দাম বেড়েছে, সেই তুলনায় বাড়িভাড়া বাড়ার হার প্রায় দ্বিগুণ।

সংগঠনটির অন্য এক পরিসংখ্যান বলছে, ঢাকার ২৭ শতাংশ ভাড়াটিয়া আয়ের প্রায় ৩০ শতাংশ, ৫৭ শতাংশ ভাড়াটিয়া প্রায় ৫০ শতাংশ, ১২ শতাংশ ভাড়াটিয়া আয়ের প্রায় ৭৫ শতাংশ টাকা ব্যয় করেন বাড়িভাড়া পরিশোধে।

এক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, ঢাকায় বর্তমানে আড়াই কোটিরও বেশি মানুষের বসবাস। প্রতি বছর রাজধানীতে ছয় লাখ ১২ হাজার মানুষ যুক্ত হচ্ছে। এক দিনের হিসাবে এক হাজার ৭০০ জন। পৃথিবীর সবচেয়ে জনবহুল শহরগুলোর তালিকায় ঢাকা ১১তম। কিন্তু আয়তন ও জনসংখ্যার হিসাবে ঢাকা পৃথিবীর সবচেয়ে ঘনবসতিপূর্ণ শহর। এখানে প্রতি বর্গকিলোমিটারে বাস করে ৪৩ হাজার ৫০০ মানুষ।

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়:
x