সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০৪:০৩ পূর্বাহ্ন

জাবি সাংবাদিকতা বিভাগের ১০ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

অর্থনীতি ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২১ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ৪২

নিউজটি শেয়ার করুন

বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতা ও গণমাধ্যম অধ্যয়ন বিভাগের ১০ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হয়েছে।

মঙ্গলবার (২১ ডিসেম্বর) সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের পাদদেশে বেলুন উড়িয়ে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর শুভ উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. নুরুল ইসলাম।

পরে শহীদ মিনার থেকে একটি আনন্দ র‍্যালি বের হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের গনিত ও পরিসংখ্যান ভবনের সামনের সড়ক প্রদক্ষিণ করে নতুন কলায় এসে শেষ হয়। পরে বিভাগে কেক কেটে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা ।

বেলা সাড়ে ১২ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের জহির রায়হান অডিটোরিয়ামের সেমিনার কক্ষে ‘গণমাধ্যমে জনস্বার্থ: কালের পরিক্রমা’ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সাংবাদিকতা ও গনমাধ্যম অধ্যয়ন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আমিনা ইসলামের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম। এছাড়াও আলোচক হিসেবে ছিলেন সাংবাদিক আবেদ খান, অধ্যাপক শামসুল মজিদ হারুন, অধ্যাপক ড. মো. মফিজুর রহমান, সাংবাদিক শাহনাজ মুন্নী। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন বিভাগের সভাপতি শেখ আদনান ফাহাদ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য ফারজানা ইসলাম বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতা ও গণমাধ্যম অধ্যয়ন বিভাগটি খোলা হয়েছে মাত্র নয় বছর আগে। আজ বিভাগটি প্রতিষ্ঠার দশম বছরে পদার্পণ করলো। একটি সুপ্রতিষ্ঠিত বিভাগ হিসেবে গড়ে তুলতে আমরা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। দেশে মেধাবী সাংবাদিক তৈরিতে এই বিভাগটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে আশা করছি।”

মুখ্য আলোচকের বক্তব্যে জনাব আবেদ খান বলেন, “সংবাদ হলো পৃথিবীর সবচেয়ে পচনশীল একটি দ্রব্য, আর এই পচনশীলকে নিয়ে যারা কাজ করে তাদের মধ্যে থাকে প্রতিযোগিতা। এর ভালো দিকও আছে, মন্দ দিকও আছে। একজন সাংবাদিক চব্বিশ ঘন্টাই সাংবাদিক। চব্বিশ ঘন্টাই তার উপর সমাজের দায়িত্ব। চব্বিশ ঘন্টাই তাকে সমাজের ভালো মন্দ বিচার করতে হবে। এক জন সাংবাদিকের দায়িত্ব হলো পচনশীল সমাজে নিজের অবস্থানকে ধরে রাখা। পৃথিবীতে এখনো সংবাদপত্র ও সাংবাদিকতা টিকে আছে সততা এবং স্বচ্ছতা বলে।”

অধ্যপক ড. মো. মজিজুর রহমান বলেন, “জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতা বিভাগকে নিয়ে আমার গর্ব হয়। আমাদের যে যে সীমাবদ্ধতা আছে তার মধ্য থেকেই পজিটিবলি শিক্ষার্থীদের কেন্দ্রে রেখে আমরা যদি কাজে লাগাতে পারি আমি নিশ্চিত সাংবাদিকতা ও গণমাধ্যম অধ্যয়নের মধ্য দিয়ে শিক্ষার্থীরা সাংবাদিকতায় জনস্বার্থে আগে যেমন কাজ করেছে, ভবিষ্যতেও করে যাবে ।”

বিভাগের সভাপতি শেখ আদনান ফাহাদ বলেন, “প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর মাহেন্দ্রক্ষণে আমরা সবাই মিলে চেষ্টা করি বিভাগকে শুধু জাতীয় পর্যায়ের নয়, আন্তর্জাতিক মানসম্মত বিভাগে উন্নীত করতে। এজন্য রাষ্ট্র এবং সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের পক্ষ থেকে আরও পৃষ্ঠপোষকতা দরকার।”

আলোচনা সভায় দৈনিক জাগরণ পত্রিকার সম্পাদক জনাব আবেদ খান এবং শিক্ষাবিদ অধ্যাপক শামসুল মজিদ হারুনকে বিভাগের পক্ষ থেকে আজীবন সম্মাননা-২০২১ প্রদান করা হয়।

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়:
x