মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ০৮:১৪ পূর্বাহ্ন

ঝালকাঠিতে অগ্নিকান্ডে কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি, আহত-৪

অর্থনীতি ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ২৯ জানুয়ারী, ২০২২

নিউজটি শেয়ার করুন

ঝালকাঠির কাঠালিয়ায় আমুয়া বন্দর বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে।শুক্রবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টায় দিকে নেছারের খাবার হোটেল থেকে আগুনের সুত্রপাত ঘটেছে বলে ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয়রা জানিয়েছে।

অগ্নিকাণ্ডে বাজারের ৭টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পুড়ে ছাই হয়ে গেছে এবং ৩/৪টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান আংশিক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এছাড়া এই অগ্নিকাণ্ডে আমুয়া বন্দর আমির মোল্লা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের তিন কক্ষের একটি টিনসেট কাঠের ঘর পুড়ে যায়।

অগ্নিকান্ডের ঘটনায় স্থানীয় ব্যবসায়ীসহ ৪জন আহত হয়েছেন। কাঠালিয়া ও বামনা ফায়ার সার্ভিসের ২টি ইউনিট দুই ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। অগ্নিকান্ডের ঘটনায় প্রায় কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ব্যবসায়ীদের দাবি।

ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ী ও স্থানীয়রা জানান, বাজারের নৈশ প্রহরীরা আগুন জ্বলতে দেখে ডাক চিৎকার দেয় এবং মসজিদ থেকে মাইকিং করলে স্থানীয়রা ছুটে এসে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনার চেষ্টা করে। কিন্তু মুহুর্তের মধ্যে আগুন আশপাশের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ছড়িয়ে পড়ে। পরে কাঠালিয়া ও বামনা ফায়ার সার্ভিসের ২টি ইউনিট খবর পেয়ে এসে দুই ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। তবে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার আগেই মো. নেছারের হোটেল, আমুয়া বন্দর আমীর মোল্লা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের টীনসেট ৩ কক্ষের একটি কাঠের ঘর, পলাশের কম্পিউটার দোকান, মাসুদের জুতার গোডাউন, বাবুলের গামের্ন্টস পোষাকের দোকান, বাবুলের জুতার দোকান, শাহজাহানের মুদি দোকানসহ ৬/৭টি দোকান পুড়ে যায়। স্থানীয়দের মতে এই ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে প্রায় কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

কাঠালিয়া ফায়ার সার্ভিসের ষ্টেশন কর্মকর্তা মো. শহীদুল ইসলাম বলেন, রাত ১২ দিকে আগুণ লাগার খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক আমরা ঘটনাস্থলে যাই এবং আগুণ নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চালাই। পরে বামনা ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট আমাদের সাথে যোগ দিলে দুই ঘন্টার প্রচেষ্টায় আগুণ নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়েছি। এতে ৩৫ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করছি।

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়:
x