রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০২:৫০ অপরাহ্ন

আগামী প্রজন্মকে ধর্মহীন করতে গভীর চক্রান্ত চলছে: জাতীয় শিক্ষক ফোরাম

অর্থনীতি ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২২

নিউজটি শেয়ার করুন

জাতীয় শিক্ষক ফোরাম এর কেন্দ্রীয় সভাপতি অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান বলেছেন, এসএসসি’র মত গুরুত্বপূর্ণ পাবলিক পরীক্ষা-২০২২ ইং এ করোনার অজুহাত দেখিয়ে “ধর্ম ও নৈতিক শিক্ষা” বাদ দেয়ার প্রস্তাবনা কোনভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। একদিকে বিজ্ঞানমনস্ক বানানোর নামে ৯ম-১০ম শ্রেণির বিজ্ঞান বইয়ে বিতর্কিত ‘ডারউইন তত্ত্ব’ বহাল রাখা হয়েছে অথচ নীতি-নৈতিকতা শিক্ষার অন্যতম মাধ্যম “ধর্মশিক্ষা” বাদ দেওয়ার প্রস্তাবনা দেওয়া হয়েছে যা সচেতন জনগণ গভীর চক্রান্তের অংশ হিসেবে দেখছে।

আজ বিকেলে জাতীয় শিক্ষক ফোরাম কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির দায়িত্বশীল সভায় কেন্দ্রীয় সভাপতি অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান উপর্যুক্ত কথা বলেন। জয়েন্ট সেক্রেটারি জেনারেল প্রভাষক আব্দুস সবুর এর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র সহ-সভাপতি মাও.এবিএম জাকারিয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক ইশতিয়াক মু. আল-আমীন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এম.আব্দুল হান্নান, অর্থ সম্পাদক এম. আজাদ, সহ-প্রচার সম্পাদক হাফিজুল হক ফাইয়াজ, সহ-শিক্ষা ও গবেষণা সম্পাদক মুফতি মহিউদ্দিন আকবর, মুফতি সাঈদ আহমদপ্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

অধ্যাপক মাহবুব বিভিন্ন দেশের শিক্ষা সিলেবাস থেকে যে রকম নাস্তিক্যবাদী ডারউইন তত্ত্ব বাদ দেয়া হয়েছে তেমনি বাংলাদেশের শিক্ষা সিলেবাস থেকে এই বিতর্কিত তত্ত্ব বাদ দেওয়া এবং শিক্ষার সর্বস্তরে ধর্মীয় শিক্ষা বাধ্যতামূলক করার আহ্বান জানান।

সিনিয়র সহ-সভাপতি মাও. এবিএম জাকারিয়া বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে শিক্ষাব্যবস্থাকে চরম ঝুঁকির মুখে ফেলে দেওয়া হয়েছে। দ্রুত প্রতিষ্ঠান খুলে দিয়ে সপ্তাহের ৬ দিনই স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষার্থীদের ক্লাসে বসার সুযোগ প্রদানে তিনি কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়:
x