শুক্রবার, ৩১ মে ২০২৪, ০৩:২৬ পূর্বাহ্ন

সুশাসন প্রতিষ্ঠায় সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের বিকল্প নেই: বিএলডিপি

অর্থনীতি ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১০ মার্চ, ২০২২

নিউজটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি- বিএলডিপি’র চেয়ারম্যান ও সাবেক ধর্ম ও পানি সম্পদ মন্ত্রী এম. নাজিম উদ্দিন আল আজাদ বলেছেন, গণতন্ত্র ও সুশাসন প্রতিষ্ঠায় সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের বিকল্প নেই। যার জন্য প্রয়োজন জাতীয় ঐক্য। দেশবাসী এবার ঐক্যবদ্ধভাবে মাঠে নেমে সুষ্ঠু নির্বাচনের পরিবেশ সৃষ্টি করতে বাধ্য করবে। গতকাল বুধবার (৯ মার্চ) সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের আবদুস সালাম হলে বিএলডিপি আয়োজিত “মহান স্বাধীনতা, ঐতিহাসিক ৭ মার্চ, গণতন্ত্র ও সুশাসন” শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

নাজিম উদ্দিন আল আজাদ বলেন, দেশের মানুষ এখন ভাল নেই। দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে দেশের মানুষ দিশেহারা হয়ে উঠেছে। অথচ সরকারী দলের অনেকে বলে দেশের মানুষ ভাল আছে। কিন্তু প্রকৃত অর্থে মানুণ অনেক কষ্টে আছে।বাণিজ্যমন্ত্রী বাণিজ্যে ব্যস্ত। বিষয়টা শিয়ালের কাছে মুরগি জমা দেয়ার মতো ঘটনা। এছাড়া দেশে গণতন্ত্র ও সুশাসন নেই বললেই চলে। এভাবে দেশ চলতে পারে না। একটি সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য জাতীয় ঐক্য দরকার।

সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, রাজনৈতিক দলের নিবন্ধন থাকবে কেন? এটা কি কোনো ট্রেড ইউনিয়ন? এটা কি কোনো কারখানা? যখন শেমুজিবুর রহমান ৭ মার্চের ভাষন দিয়েছিল তথন কি আওয়ামী লীগের নিবন্ধন ছিল? ছিল না। কাজেই রাজনৈতিক দলের নিবন্ধন পদ্ধতি বাতিল করতে হবে। সবাইকে স্বাধীনভাবে রাজনীতি করতে দিতে হবে।

এসময় নেতৃবৃন্দ বলেন, দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগিতে দেশের মানুষ এখন দিশেহারা। দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রনে রাখতে সরকার সম্পূর্ণ ব্যর্থ। দেশে ভোটাধিকার নেই বললেই চলে। হুদা কমিশন সুষ্ঠু নির্বাচনের ব্যবস্থা না করেই চলে গেছে ঠিকই কিন্তু বর্তমান নির্বাচন কমিশন সুষ্ঠু নির্বাচন না করে পালানোর পথও খুঁজে পাবে না। দেশবাসী এবার ঐক্যবদ্ধ হয়ে মাঠে নেমে সুষ্ঠু নির্বাচন করতে বাধ্য হবে।

বিএলডিপি’র ভাইস চেয়ারম্যান মো. কবির হোসেনের সভাপতিত্বে ও মো. মনোয়ার হোসেনের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন- হুসাইন মোহাম্মদ এরশাদ ট্রাস্ট’র চেয়ারম্যান কাজী মো. মামুনুর রশিদ, বিএলডিপি’র মহাসচিব মো. মনিরুজ্জামান স্বাধীন প্রমুখ। এছাড়া বিএলডিপি’র কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দ, ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণের নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের চেয়ারম্যান ও মহাসচিবরা উপস্থিত ছিলেন।

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়:
x