বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৬:০৪ অপরাহ্ন

ইমরান খানের বিবাহ বিচ্ছেদ ও রাজনীতি

অর্থনীতি ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১০ এপ্রিল, ২০২২

নিউজটি শেয়ার করুন

ইমরান খান ও জেমিমা খানের বিবাহ বিচ্ছেদের সময় কোর্টের বিচারক ঘোষণা করলেন, জেমিমার সম্পত্তির অর্ধেক ১২ হাজার কোটি পাউন্ড ইমরান খান পাবেন। ইমরান খান উত্তর দিলেন, আমার তার দরকার নেই।
বিচারক আশ্চর্য হয়ে গেলেন, জেমিমাকে জিজ্ঞেস করলেন, তিনি কেন এরকম নির্লোভ এবং মহান একজন স্বামীর সাথে বিচ্ছেদ চাচ্ছেন?

জেমিমার উত্তর ছিল, ইমরান খান যদি লন্ডনে তার সাথে বসবাস করেন তাহলে তিনি এ বিচ্ছেদ চাইবেন না।
বিচারক জিজ্ঞেস করলেন জেমিমা আপনি কেন পাকিস্থানে থাকতে চান না?

জেমিমার উত্তর ছিল, পাকিস্তানের কলুষিত রাজনৈতিক নোংরা শিকারে পরিণত হচ্ছেন তিনি। নওয়াজ শরিফ সরকার তাকে স্মাগলিং মামলায় ফাঁসিয়েছে।

বিচারক ইমরান খানকে জিজ্ঞেস করলেন তিনি কেন লন্ডনে থাকতে চাচ্ছেন না?
ইমরান খানের উত্তর ছিল পাকিস্তান অনেক গরিব দেশ এ দেশে অশিক্ষা দারিদ্র্য অবিচারে ভরপুর তিনি কিছু একটা করতে চান দেশের জন্য। তাই লন্ডনে থাকা তার জন্য সম্ভব নয়।

বিচারক বলেন সে ক্ষেত্রে বাচ্চা দু’জন তাদের মায়ের সাথে থাকবে।

ইমরান সানন্দে রাজি হলেন এবং বললেন জেমিমা অত্যন্ত চমৎকার একজন স্ত্রী এবং তার চেয়েও চমৎকার একজন মা সুতরাং বাচ্চাদের তার কাছেই থাকা উচিত।

বিচারক আশ্চর্য হয়ে তাকিয়ে রইলেন ইমরান খানের দিকে। ইমরান খানের সাথে হাত মেলালেন এবং তার পরপরই বিবাহ বিচ্ছেদ ঘোষণা করলেন।

জেমিমা ও ইমরান খান পরস্পরকে জড়িয়ে ধরে কাঁদতে থাকলেন।

আজ নোংরা পলিটিক্সের শিকার হয়ে পাকিস্তানের ক্ষমতা থেকে বিদায় হতে হলো। সবচাইতে আশ্চার্যর বিষয় হলো অনাস্থা ভোটে হেরে যাওয়ার পর এক ঘন্টার মধ্যে সরকারি বাসভবন ছাড়লেন।খালি হাতে এসেছিলেন আবার খালি হাতেই বের হয়ে গেলেন।

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়:
x