শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ১০:১৮ পূর্বাহ্ন

বাংলালিংক ও স্টার্টআপ বাংলাদেশ-এর যৌথ উদ্যোগে

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২৮ জুন, ২০২২

নিউজটি শেয়ার করুন

বাংলালিংক ও স্টার্টআপ বাংলাদেশ সোমবার যৌথভাবে আগারগাঁওয়ের বিসিসি মিলনায়তনে “রোড টু নিউ ডিজিটাল ইকোসিস্টেম – ডেভেলপিং টেক এন্ট্রাপ্রেনিউরস” শীর্ষক একটি সেমিনার আয়োজন করেছে। সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব এন এম জিয়াউল আলম পিএএ। সেমিনারে আরও উপস্থিত ছিলেন স্টার্টআপ বাংলাদেশ লিমিটেড-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক সামি আহমেদ এবং বাংলালিংক-এর চিফ কর্পোরেট অ্যান্ড রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স অফিসার তাইমুর রহমান।

দেশের স্টার্টআপ ইকোসিস্টেমের উন্নয়নে অ্যাপলিংক-এর মতো ডিজিটাল মার্কেটপ্লেসের ভূমিকা নিয়ে আলোচনা করা হয় এই সেমিনারে। অ্যাপলিংক বাংলালিংক-এর একটি ডিজিটাল মার্কেটপ্লেস, যেখানে অ্যাপ ডেভেলপাররা অ্যাপের মাধ্যমে অর্থ উপার্জনের জন্য প্রয়োজনী সুবিধা পেয় থাকেন। বক্তারা দেশে স্টার্টআপের উন্নয়ন ও প্রযুক্তি উদ্যোক্তাদের সহযোগিতার ক্ষেত্রে বাংলালিংক-এর মতো ডিজিটাল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানের ভূমিকা নিয়েও আলোচনা করেন।

তাইমুর রহমানের উদ্বোধনী বক্তৃতার মাধ্যমে সেমিনারের সূচনা হয়। এরপর বাংলালিংক-এর উপর একটি পরিবেশনা উপস্থাপিত হয়। স্টার্টআপ বাংলাদেশ লিমিটেড-এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর সামি আহমেদ এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব এন এম জিয়াউল আলম পিএএ দেশে স্টার্টআপের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে তাদের বক্তব্য প্রদান করেন। প্রশ্নোত্তর পর্ব এবং ক্রেস্ট প্রদান অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সেমিনারটি শেষ হয়।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব এন এম জিয়াউল আলম পিএএ বলেন, “বাংলালিংক দেশে তৈরি ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে যেভাবে আমাদের তরুণ আইটি পেশাদারদের উৎসাহিত করছে, তা সত্যিই আশাব্যঞ্জক। এই ধরনের প্ল্যাটফর্মগুলিকে কাজে লাগিয়ে তারা আইটি সেক্টরের উন্নয়নে অবদান রাখার পাশাপাশি নিজেদেরকে সফল উদ্যোক্তা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে পারবে। প্রতিভাবান তরুণরা স্থানীয় প্রযুক্তি বাজারের সাথে সরাসরি যুক্ত হতে পারলে প্রযুক্তিভিত্তিক উদ্যোগে তাদের সম্ভাবনা উন্মোচিত হবে।”

স্টার্টআপ বাংলাদেশ লিমিটেড-এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর সামি আহমেদ বলেন, “দেশের প্রযুক্তি ও স্টার্টআপ খাতের উন্নয়নে শীর্ষ ডিজিটাল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলির গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। তাদের সহযোগিতা নিয়ে সম্ভাবনাময় আইটি উদ্যোক্তারা নিজেদেরকে সঠিকভাবে বিকাশের সুযোগ পাবে। আমরা আমরা বাংলালিংক-এর এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাই এবং আশা করি এই ধরনের অন্যান্য প্রতিষ্ঠানগুলিও অ্যাপলিংক-এর মতো নিতে এগিয়ে আসবে।”

বাংলালিংক-এর চিফ কর্পোরেট অ্যান্ড রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স অফিসার তাইমুর রহমান বলেন,“প্রযুক্তি খাতে দেশের প্রতিভাবানদের ক্ষমতায়নের লক্ষ্য নিয়ে বাংলালিংক দেশে তৈরি প্ল্যাটফর্ম ‘অ্যাপলিংক’-এর যাত্রা শুরু করেছে। আমরা সম্পূর্ণভাবে দেশীয় প্রযুক্তি বাজার তৈরির মাধ্যমে স্থানীয় ডেভেলপার এবং গ্রাহকদের মধ্যে ব্যবধান কমিয়ে আনতে চাই। আমি দেশের প্রতিভাবান তরুণ আইটি পেশাদারদেরকে অ্যাপলিংক-এর সুবিধা ব্যবহার করে দেশের জন্য উপযোগী সেবা তৈরিতে আমন্ত্রণ জানাচ্ছি।”

টেকসই আইটি শিল্প গড়ে তোলার লক্ষ্যে বাংলালিংক দেশের প্রতিভাবান আইটি উদ্যোক্তাদের সহযোগিতা করে যাবে।

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়:
x