বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:৪৬ অপরাহ্ন

পথশিশুদের জন্মনিবন্ধন সনদ দেওয়ার পদক্ষেপ জানতে চান হাইকোর্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন, ২০২২

নিউজটি শেয়ার করুন

পথ শিশুদের জন্মনিবন্ধন সনদ দিতে সরকার কী পদক্ষেপ নিয়েছে আগামী তিন মাসের মধ্যে তা জানাতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। এ সংক্রান্ত এক রিটের প্রাথমিক শুনানির পর বৃহস্পতিবার রুলসহ এ আদেশ দেন বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি খিজির হায়াতের হাইকোর্ট হাইকোর্ট বেঞ্চ।

বিদ্যমান আইন ও বিধি অনুযায়ী দেশের সব পথশিশুকে জন্মনিবন্ধন সনদ দিতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, তা জানতে চাওয়া হয়েছে রুলে। একই সঙ্গে পথশিশুদের জন্মনিবন্ধন সনদ দেওয়ার ক্ষেত্রে বিবাদিদের নিষ্ক্রীয়তা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, রুলে তাও জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট।

আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব, জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন কার্যালয়ের রেজিস্ট্রার জেনারেল, স্বরাষ্ট্র সচিবসব সংশ্লিষ্টদের রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।
আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী তাপস কান্তি বল ও আইনজীবী জর্জ চৌধুরী। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিপুল বাগমার।

কাতারের রাজধানী দোহায় এ বছর অক্টোবরে পথশিশুদের বিশ্বকাপ ফুটবল অনুষ্ঠিত হবে। শুধু মেয়েদের এই আসরে অংশ নেবে ২১টি দেশ। সেখানে অংশ নেওয়ার জন্য বাংলাদেশের ১০ পথশিশু মেয়েকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। কাতারে যাওয়ার পাসপোর্টের জন্য আবেদন করতে দরকার জন্মনিবন্ধন সনদ। তবে মা–বাবার খোঁজ না থাকায় এই শিশুদের তিনজনের জন্মসনদপ্রাপ্তিতে দেখা দেয় জটিলতা। ওই শিশুদের মা–বাবার জন্মসনদ চায় প্রশাসন। এমন প্রেক্ষাপটে জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন আইন-২০০৪ ও জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন বিধিমালা-২০১৮ অনুয়ায়ী পথ শিশুদের জন্মনিবন্ধন সনদ দেওয়ার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বিবাদিদের উকিল পাঠায় সামাজিক সংগঠন ‘স্পোর্টস ফর হোপ অ্যান্ড ইনডিপেনডেন্ট’। কিন্তু তাদের কাছ থেকে সাড়া না পেয়ে পরে গত ২০ মে সংগঠনটির পক্ষে হাইকোর্টে রিট আবেদন করা হয়।

বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে আইনজীবী তাপস কান্তি বল সাংবাদিকদের বলেন, ‘রাজধানী ঢাকায় দুই লাখের বেশি পথশিশুর বসবাস রয়েছে।’

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়:
x