শুক্রবার, ৩১ মে ২০২৪, ০১:৫০ পূর্বাহ্ন

সরকারের পতন অতি সন্নিকটে : মির্জা ফখরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ১৫ জুলাই, ২০২২

নিউজটি শেয়ার করুন

জনগণের সম্মিলিত শক্তির কাছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারের পতন এখন অতি সন্নিকটে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। সম্প্রতি, রাজশাহীর বাগমারার ভবানীগঞ্জে দোয়া মাহফিলে পুলিশী হামলা ও ময়মনসিংহের পাগলায় দক্ষিণ জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক আক্তারুজ্জামান বাচ্চুর বাড়িতে ঈদপরবর্তী শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানে আওয়ামী সন্ত্রাসীদের আক্রমনের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে গতকাল শুক্রবার গণমাধ্যমে পাঠানো বিবৃতিতে তিনি এই মন্তব্য করেন।

বিবৃতিতে বিএনপি মহাসচিব বলেন, পুলিশের কাছে অনুমতি নিয়ে (বৃহস্পতিবার) বাগমারা উপজেলার ভবানীগঞ্জে স্থানীয় বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ বেগম খালেদা জিয়ার রোগ মুক্তি কামনায় দোয়ার আয়োজন করে। এতে পুলিশ যে সন্ত্রাসী তান্ডব চালায় তা নজিরবিহীন। পুলিশ এতটাই বেপরোয়া হয়ে উঠেছে, তারা বিএনপির ধর্মীয় অনুষ্ঠানকেও বানচাল করতে সন্ত্রাসী হামলা চালাচ্ছে। এই ঘটনায় সরকারের নৃশংস ফ্যাসিবাদের উগ্ররূপ প্রকাশ পেয়েছে।

তিনি আরো বলেন, গত ১৩ জুলাই ময়মনসিংহের পাগলায় আওয়ামী সন্ত্রাসীদের হামলা এবং ৪০ টি মটর সাইকেল ভাংচুর করা এবং বিএনপি নেতা আক্তারুজ্জামান বাচ্চু, তার বৃদ্ধ মাতাসহ বিএনপি নেতৃবৃন্দের ওপর যে পৈশাচিক হামলা করা হয়েছে তা বর্তমান অবৈধ সরকারের সন্ত্রাস নির্ভর অপ-রাজনীতির আরেকটি বর্ধিত প্রকাশ।

রাজশাহীর বাগমারা ও ময়মনসিংহের পাগলার ঘটনা সরকারের পরিকল্পিত ও অসৎ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রনোদিত বলে মনে করেন মির্জা ফখরুল। বিএনপি মহাসচিব বলেন, বর্তমানে সরকার নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের অগ্নিমূল্য, অর্থ পাচার আর মহা দুর্নীতিতে এমনভাবে আষ্টেপৃষ্ঠে জড়িয়ে আছে যে সেটিকে আড়াল করার জন্যই দেশব্যাপী সন্ত্রাসের পরিকাঠামো তৈরি করেছে। আর এই সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে প্রতিদিনই বিএনপি নেতাকর্মীদের রক্ত ঝড়ছে। নিহত ও আহত হচ্ছেন অসংখ্য বিএনপি নেতাকর্মী।

মির্জা ফখরুল বলেন, বিএনপির কর্মসূচির কথা শুনলেই আওয়ামী লীগ ও আওয়ামী প্রশাসন বিচলিত হয়ে পড়ে। মনে হয় তাদের পায়ের নিচের মাটি কাঁপতে শুরু করেছে। গণতন্ত্রকে উচ্ছেদ করে অবৈধ ক্ষমতা ধরে রাখতে এই সরকার নানা ধরনের সর্বনাশা সহিংসপন্থা অবলম্বন করেছে। এমকি পবিত্র ঈদের আগে পরেও আওয়ামী সন্ত্রাসের বাড়বাড়ন্ত স্তিমিত হয়নি। প্রচন্ডবেগে গণবিক্ষোভের বিষ্ফোরণকে ঠেকানোর জন্যই দলীয় চেতনায় সাজানো প্রশাসন ও আওয়ামী সন্ত্রাসীদেরকে অবৈধ অস্ত্র দিয়ে মাঠে নামানো হয়েছে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, তবে এই সরকারের পতনের সাইরেন বাজতে শুরু করেছে। জনগণের সম্মিলিত শক্তির কাছে এই সরকারের পতন এখন অতি সন্নিকটে।

রাজশাহীর বাগমারার ভবানীগঞ্জে পুলিশী হামলা ও ময়মনসিংহের পাগলায় আওয়ামী সন্ত্রাসীদের আক্রমনের তীব্র ঘৃণা ও ধিক্কার জানিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, অবিলম্বে জড়িত আওয়ামী দুষ্কৃতিকারীদের গ্রেফতার করে শাস্তির জোর দাবী জানাচ্ছি।

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়:
x