শুক্রবার, ৩১ মে ২০২৪, ০৪:২৫ পূর্বাহ্ন

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় অভিমুখে বাম জোটের বিক্ষোভ মিছিল

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ৮ আগস্ট, ২০২২

নিউজটি শেয়ার করুন

জ্বালানি তেলের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির গণবিরোধী ও স্বৈরাচারি সরকারের একতরফা সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবিতে আগামী ১৭ আগস্ট প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় অভিমুখে বিক্ষোভ মিছিলের কর্মসূচির ঘোষণা করেছে বাম গণতান্ত্রিক জোট। একই দিনে সারা দেশে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ কর্মসূচি দেওয়া হয়েছে।

আজ সোমবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে এই কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য মোশাররফ হোসেন নান্নুর সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) সভাপতি মো. শাহ আলম, বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সহকারি সাধারণ সম্পাদক রাজেকুজ্জামান রতন, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোশরেফা মিশু, বাসদ (মার্কসবাদী) সমন্বয়ক মাসুদ রানা, সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের নির্বাহী সভাপতি আব্দুল আলী প্রমূখ। সমাবেশ পরিচালনা করেন ইউসিএলবি’র কেন্দ্রীয় নেতা নজরুল ইসলাম।

সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, বিশ্ববাজারে যখন তেলের দাম নিম্নমুখী সে সময়ে সরকারের এই সিদ্ধান্ত জনগণের উপর মূল্যবৃদ্ধির বোঝা আরও বাড়াবে। শিল্প, কৃষি, পরিবহন থেকে শুরু করে সকল ক্ষেত্রেই জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রভাব পড়বে। এতে জনজীবনে চরম দুর্দশা নেমে আসবে। সরকারের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, গত ছয় মাসে বিপিসি জ্বালানি তেল বিক্রি করে ৮ হাজার কোটি টাকা লোকসান করেছে। কিন্তু বিগত সময়ে বিশ্ববাজারে যখন তেলের দাম কম ছিল সে সময়ে তেল বিক্রি করে সরকার ৪৩ হাজার কোটি টাকা মুনাফা করেছিল; তা দিয়েই এই ঘাটতি পূরণ করা যেত। অথচ সরকোর সে পথে না হেটে জনগণের উপরে মূল্যবৃদ্ধির বোঝা চাপিয়ে দিল। অবিলম্বে সরকারকে এই গণবিরোধী সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসার আহ্বান জানান নেতৃবৃন্দ।

সমাবেশে জানানো হয়, আগামী ১৬ আগস্টের মধ্যে এই বর্ধিত মূল্য প্রত্যাহার করা না হলে ১৭ আগস্ট প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় অভিমুখে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করা হবে। একই দিনে সারা দেশে ডিসি অফিসের সামনে বিক্ষোভ কর্মসূচী সফল করার আহ্বান জানান নেতৃবৃন্দ।

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়:
x