বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৩:৪৩ পূর্বাহ্ন

শ্রমিকদের স্বাস্থ্যের উন্নয়নে বিজিএমইএ’র সমঝোতা চুক্তি

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ৪ জানুয়ারী, ২০২৩

নিউজটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতি (বিজিএমইএ) এবং গ্লোবাল অ্যালায়েন্স ফর ইমপ্রুভড নিউট্রিশন (গেইন) বাংলাদেশের পোশাক শ্রমিকদের স্বাস্থ্য অবস্থার উন্নয়ন করতে সমঝোতা চুক্তি করেছে। গতকাল বুধবার ঢাকায় বিজিএমইএ কমপ্লেক্সে বিজিএমইএ এবং গেইন এই সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করে। বিজিএমইএর সভাপতি ফারুক হাসান এবং গেইন এর কান্ট্রি ডিরেক্টর ডা. রুদাবা খন্দকার নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেন।

সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে বিজিএমইএ এর ১ম সহ-সভাপতি সৈয়দ নজরুল ইসলাম, সহ-সভাপতি রাকিবুল আলম চৌধুরী, পরিচালক আব্দুল্লাহ হিল রাকিব, পরিচালক মোঃ ইমরানুর রহমান, পরিচালক এ.এম. শফিউল করিম (খোকন), পরিচালক মোঃ হাসান (জ্যাকি), পরিচালক মোহাম্মদ মিরাজ-ই-মোস্তফা (কায়সার) এবং মনিরুজ্জামান বিপুল, পোর্টফোলিও লিড, ড্রাইভারস অফ ফুড সিস্টেমস চেইঞ্জ, গেইন এবং জি.এম. রেজা সুমন, প্রকল্প ব্যবস্থাপক, গেইন এবং অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সমঝোতা স্মারক অনুসারে, বিজিএমইএ এবং গেইন পোশাক কর্মীদের জন্য উপযুক্ত পুষ্টি নিশ্চিত করতে একটি সহায়ক পরিবেশ তৈরি করতে একসঙ্গে কাজ করবে। তারা কর্মীদের সুস্থতার জন্য পুষ্টি কার্যক্রমকে আরও ব্যাপক করতে ন্যাশনাল ওয়ার্কফোর্স নিউট্রিশন অ্যালায়েন্স এর প্রাতিষ্ঠানিক সক্ষমতা জোরদার করার জন্য প্রযুক্তিগত দিক নির্দেশনা প্রদান করবে।

পোশাক কারখানায় ফেয়ার প্রাইস শপ প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে শ্রমিকরা যাতে করে সাশ্রয়ী মুল্যে পুষ্টিকর এবং নিরাপদ খাদ্য পেতে পারে, তার জন্য সমন্বিত ধারনা এবং প্রক্রিয়া তৈরি করতে উভয় পক্ষ একসঙ্গে কাজ করবে। তারা বিভিন্ন আনুষ্ঠানিক ও অনানুষ্ঠানিক খাতের কর্মীদের পুষ্টি পরিষেবা এবং মাইক্রোনিউট্রিয়েন্ট সম্পূরক প্রদানের জন্যও একসাথে কাজ করবে।

বিজিএমইএ এবং গেইন এর মধ্যে এই অংশীদারিত্বের লক্ষ্য হচ্ছে, বাংলাদেশের পোশাক কর্মীদের পুষ্টি অবস্থার উন্নয়ন ঘটানো, যা প্রকারান্তরে পুষ্টির জন্য দ্বিতীয় জাতীয় কর্ম পরিকল্পনা লক্ষ্য অর্জন, সেইসাথে জাতিসংঘ ঘোষিত টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রাসমূহ, Ñ এসডিজি-২ (ক্ষুধা মুক্তি), এসডিজি-৩ (সুস্বাস্থ্য ও কল্যান), এসডিজি-৫ (জেন্ডার সমতা) এবং এসডিজি-৮ (শোভন কাজ এবং অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি) পূরণ করতে অবদান রাখবে।

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়:
x