মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ০৩:৫৩ অপরাহ্ন

দুর্দান্ত উপহারে হাতের নাগালে ভি২৭ই এবং ভি২৭

আইটি প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১১ এপ্রিল, ২০২৩

নিউজটি শেয়ার করুন

ঈদকে সামনে রেখে চলে এসেছে ভিভো ভি২৭ই। পোর্ট্রেট ফটোগ্রাফিতে দারুণ দক্ষ ভি সিরিজের এই নতুন স্মার্টফোন ১১ এপ্রিল থেকে মিলছে হাতের নাগালেই। ভি২৭ই এর সাথে এসেছে ভি২৭ স্মার্টফোনও। ঈদে স্মার্টফোন দুইটি কিনলেই থাকছে উপহার।

ঈদ উপলক্ষে ভি২৭ই ও ভি২৭ কিনলে থাকছে রিরো টিডব্লিউএস ইয়ার বাড। স্মার্টফোনের স্ক্রিন রিপ্লেসমেন্টের ঝক্কি অনেক। তবে যারা ভি২৭ই কিনবেন তাঁদের জন্য আছে সুখবর। মাত্র ৬৯৯ টাকায় মিলছে এই সুবিধা।

ঘরে বসেও সহজেই কেনা যাবে ভি২৭ই ও ভি২৭। সেক্ষেত্রেও থাকছে উপহার জেতার দারুণ সুযোগ। এমনকি ফ্রি হোম ডেলিভারির সুবিধাও মিলবে। থাকছে ১৮ মাসে ইএমআই সুবিধা। ই-স্টোরেও উপহার হিসেবে পাওয়া যাবে অফিশিয়াল রিরো টিডব্লিউএস ইয়ার বাড। সাথে পাওয়া যাবে এক্সক্লুসিভ গিফট ব্যাক প্যাক এবং ৪জি ইন্টারনেট একদম ফ্রি।

মাত্র ৩২,৯৯৯ টাকায় ভিভোর নতুন উদ্ভাবন অরা লাইট পোর্ট্রেট সমৃদ্ধ ভিভো ভি২৭ই পাওয়া যাবে ল্যাভেন্ডার পার্পল এবং গ্লোরি ব্ল্যাক রঙে। ৬৪ মেগাপিক্সেল ওআইএস আল্ট্রা-সেন্সিং ক্যামেরার এই স্মার্টফোনে রয়েছে ১২০ হার্জ অ্যামোলেড ডিসপ্লে। এই বাজেটের মধ্যে ৬৬ ওয়াট ফ্লাশ চার্জ প্রযুক্তি এবং ৮জিবি র‍্যাম+৮জিবি বর্ধিত র‍্যামের পাশাপাশি ২৫৬জিবি রমের দুর্দান্ত সুবিধা মিলবে এই স্মার্টফোনে।

অপরদিকে অরা লাইট এবং সনির সেন্সর সমৃদ্ধ ১২০ হার্জ থ্রিডি কার্ভ স্ক্রিনের ভি২৭ পাওয়া যাবে মাত্র ৫৪,৯৯৯ টাকা। নোবেল ব্ল্যাক এবং ম্যাজিক ব্লুর কালার চেঞ্জিং রঙে মুগ্ধ হবেন গ্রাহক।

ভিভোর দুর্দান্ত এই দুইটি স্মার্টফোন সংগ্রহ করতে গ্রাহকে যেতে হবে ভিভোর যেকোনো অথোরাইজড শো-রুমে কিংবা ই-স্টোরে।

ভিভো প্রসঙ্গে

ভিভো একটি প্রযুক্তিভিত্তিক প্রতিষ্ঠান যা মানুষের চাহিদাকে প্রাধান্য দিয়ে স্মার্ট ডিভাইস ও ইন্টেলিজেন্ট সার্ভিসের মাধ্যমে পণ্য উৎপাদন করে। মানুষ আর ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডের মধ্যে সেতুবন্ধন তৈরি করাই প্রতিষ্ঠানটির উদ্দেশ্য। অনন্য সৃজনশীলতার মাধ্যমে ভিভো ব্যবহারকারীদের হাতে যথোপযুক্ত স্মার্টফোন ও ডিজিটাল আনুষাঙ্গিক তুলে দিচ্ছে। প্রতিষ্ঠানের মূল্যবোধকে অনুসরণ করে ভিভো টেকসই উন্নয়ন কৌশল বাস্তবায়ন করেছে; সমৃদ্ধ ও দীর্ঘস্থায়ী বিশ্বমানের প্রতিষ্ঠান হওয়াই যার ভিশন।

স্থানীয় মেধাবী কর্মীদের নিয়োগ ও উন্নয়নের মাধ্যমে শেনজেন, ডনগান, নানজিং, বেজিং, হংঝু, সাংহাই, জিয়ান, তাইপে, টোকিও এবং সান ডিয়াগো এই ১০টি গবেষণা ও উন্নয়ন কেন্দ্রে (আরএন্ডডি) কাজ করছে ভিভো। যা স্টেট-অফ-দ্য-আর্ট কনজ্যুমার টেকনোলজির উন্নয়ন, ফাইভজি, আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স, ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডিজাইন, ফটোগ্রাফি এবং আসন্ন প্রযুক্তির ওপর কাজ করে যাচ্ছে। চীন, দক্ষিণ ও দক্ষিণপূর্ব এশিয়ায় ভিভোর পাঁচটি প্রোডাকশন হাব আছে (ব্র্যান্ড অথোরাইজড ম্যানুফ্যাকচারিং সেন্টারসহ) যেখানে বছরে প্রায় ২০০ মিলিয়ন স্মার্টফোন বানানোর সামর্থ্য আছে। এখন পর্যন্ত ৬০টিরও বেশি দেশে বিক্রয়ের নেটওয়ার্ক আছে ভিভোর এবং বিশ্বজুড়ে ৪০০ মিলিয়নের বেশি ভিভো স্মার্টফোন ব্যবহারকারী রয়েছে।

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়:
x