শুক্রবার, ৩১ মে ২০২৪, ০৪:৫৮ পূর্বাহ্ন

একসাথে চালানো যাবে ১৮টি অ্যাপ

আইটি প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২ মে, ২০২৩

নিউজটি শেয়ার করুন

তরুণদের স্মার্টফোন ব্যবহার আরো সহজ করার দিকে মনোযোগী নির্মাতা প্রতিষ্ঠাগুলো। এ জন্য শক্তিশালী প্রসেসর, হাই-ডেফিনিশন স্ক্রিন এবং উন্নত গেমিং ও ক্যামেরা প্রযুক্তিসহ নতুন নতুন ফিচার যুক্ত করার চেষ্টা থাকে তাদের। ব্যবহারকারীদের অনেক সময় একসাথে একাধিক অ্যাপ ব্যবহারেরও দরকার হয়। তবে এ ক্ষেত্রে বিড়ম্বনার মুখোমুখি হতে হয় তাদের। তবে এই সমস্যা সমাধানে এখন একসাথে একাধিক অ্যাপ যাতে ব্যবহার করা যায়, তেমন উন্নত স্মার্টফোন আসছে বাজারে। সম্প্রতি চীনা স্মার্টফোন ব্র্যান্ড ইনফিনিক্স এমন একটি ফোন বাজারে এনেছে। ১৮টি পর্যন্ত অ্যাপ একইসাথে চালানোর সুবিধা পাওয়া যাবে ফোনটিতে। একইসাথে আরো বেশ কয়েকটি উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে নতুন এ স্মার্টফোনটিতে।

প্রসেসর: হট ৩০ ফোনের সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য ফিচারগুলোর একটি হলো এর শক্তিশালী হেলিও জি৮৮ প্রসেসর। এর ৮-কোর আর্কিটেকচার ডিজাইনে আছে সর্বোচ্চ ২.০ গিগাহার্জ-এর দু’টি শক্তিশালী এআরএম কর্টেক্স-এ৭৫ কোর। এর ফলে এই ফোনে দ্রুত লোডিং টাইম, পাওয়ার অপটিমাইজেশন এবং ১৮টি পর্যন্ত অ্যাপ একইসাথে চালানোর সুবিধা পাওয়া যাবে। আর বেশিরভাগ তরুণদের জন্যই বর্তমানে মাল্টিটাস্কিং একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।

ব্যাটারি: হট ৩০ ফোনের ৫০০০ এমএএইচ ব্যাটারি চলতে পারে সারাদিন। ৫% চার্জেও এই ফোন ২ ঘণ্টা পর্যন্ত পারফর্ম করতে পারে। গেমারদের জন্য এটি অনেক বড় একটি ব্যাপার। এখন ব্যাটারি ফুরিয়ে যাওয়ার চিন্তা ছাড়াই তারা প্রিয় গেম খেলে যেতে পারবেন। এছাড়াও, এর ৩৩ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তির সাহায্যে ফোনটি মাত্র ৩০ মিনিটেই ৫৫% পর্যন্ত চার্জ হতে পারে। এর ফলে ফোনকে খুব বেশিক্ষণ দূরে রাখতে হবে না।

ডিসপ্লে: হট ৩০ ফোনে আছে ১০৮০পি হাই রেজোলিউশনের ৬.৭৮ ইঞ্চি পারফোরেটেড স্ক্রিন, ৯০ হার্জ হাই রিফ্রেশ রেট এবং ২৭০ হার্জ টাচ স্যাম্পলিং রেট। ফলে মাইক্রো-অপারেশনের জন্য সময়মতো টাচ রেসপন্স পাবেন গেমাররা। এছাড়াও সিনেমা অথবা টিভি শো স্ট্রিম করার জন্যও এই স্ক্রিন আদর্শ।

ক্যামেরা: ফটোগ্রাফিপ্রেমীদের জন্যও হট ৩০ একটি ভালো ফোন হতে পারে। এতে আছে এফ১.৬ অ্যাপারচার সম্পন্ন ৫০-মেগাপিক্সেল মেইন ক্যামেরা লেন্স, এর ফলে লাইট ইনটেক বৃদ্ধি পায়। আরও আছে একটি মাল্টি-ফ্রেম ওভারলে অ্যালগরিদম, যা রাতের ছবির মান উন্নত করে এবং বিভিন্ন ধরনের নাইট ফিল্টার ব্যবহারের সুবিধা প্রদান করে। এর ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা সেলফি তোলার জন্য যথেষ্ট।

এই ফোনে বিশেষভাবে ব্যবহার করা হয়েছে লিংক বুমিং প্রযুক্তি। এর ফলে ওয়াই-ফাই এবং ফোনের ডেটা একসাথে কাজ করে। তাই গেমিং হতে পারে নির্ঝঞ্ঝাট। হট ৩০ এর ৪+১২৮ জিবি এবং ৮+১২৮ জিবি-র দু’টি ভ্যারিয়েন্ট পাওয়া যাচ্ছে রেসিং ব্ল্যাক, সনিক হোয়াইট ও সার্ফিং গ্রিন- এই তিনটি রঙয়ে।

সব মিলিয়ে, হট ৩০ তরুণদের জন্য বিশেষভাবে ডিজাইন করা চমৎকার একটি গেমিং ফোন। এর দাম শুরু হয়েছে ১৪,৯৯৯ টাকা থেকে।

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়:
x