মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ০৬:৩৬ পূর্বাহ্ন

হিন্ডেনবার্গের বক্তব্য মিথ্যা, মরিশাসে কোন ‘শেল’ কোম্পানি নেই: মন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১৭ মে, ২০২৩

নিউজটি শেয়ার করুন

মরিশাসের আর্থিক সেবাখাতের দায়িত্বরত মন্ত্রী মহেন কুমার সেরুত্তুন জানিয়েছেন, দেশটিতে ‘শেল’ কোম্পানির কোনো অস্তিত্ব নেই। হিন্ডেনবার্গ রিসার্চের করা প্রতিবেদন এবং অভিযোগ ‘ভিত্তিহীন’ ও ‘অসত্য’। একইসঙ্গে মরিশাস ‘দ্য অর্গানাইজেশন ফর ইকোনমিক কো-অপারেশন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট(ওইসিডি)-ম্যান্ডেট ট্যাক্স রুলস’-প্রতিপালন করে থাকে বলেও জানান মহেন কুমার সেরুত্তুন। এই ঘোষণার পর থেকেই, বৃহস্পতিবার সকাল থেকে দ্রুত বাড়তে থাকে আদানির শেয়ারের দাম।

এর আগে মরিশাসের পার্লামেন্টে একজন সংসদ সদস্য লিখিত প্রশ্নের মাধ্যমে হিন্ডেনবার্গ রিসার্চের অভিযোগ সম্পর্কে জানতে চান। এক্ষেত্রে মরিশাস-ভিত্তিক আদানি গ্রুপের কোম্পানিগুলোর অস্তিত্ব ও সেগুলো ‘মানি লন্ডারিং’ ও ‘শেয়ারের দাম’ জালিয়াতির সঙ্গে জড়িত কি না- এসব বিষয়ে অর্থমন্ত্রী মহেন কুমার সেরুত্তুন এর দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়।

জবাবে মহেন কুমার সেরুত্তুন আরো জানিয়েছেন, “সব বৈশ্বিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে উপযুক্ত বাধ্যবাধকতা পূরণ করেই মরিশাসের ফিনান্সিয়াল সার্ভিস কমিশনের কাছ থেকে লাইসেন্স পেতে হয় এবং এসব প্রক্রিয়া পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে পর্যবেক্ষণ করা হয়ে থাকে। তাই এখন পর্যন্ত আইনের কোনো ব্যত্যয় ঘটেনি।”

এছাড়া, মরিশাসে কোনো কোম্পানির রেজিস্ট্রেশনের ক্ষেত্রে মরিশাসে আর্থিক কার্যক্রমের বিষয়াদি পর্যালোচনা করা হয়। আর তাই প্রতিষ্ঠানটিতে দেশটির বাসিন্দা অন্তত দুই জন ডিরেক্টর নিয়োগ, সেখানে প্রিন্সিপাল ব্যাংক অ্যাকাউন্ট রাখা ও সেসবের রেকর্ড সংগ্রহ করা, আর্থিক নথিপত্রের বিবরণ ও মরিশাস কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে অডিটকরা সহ বেশ কিছু বাধ্যবাধকতা রয়েছে বলেও জানান এই মন্ত্রী।

প্রসঙ্গত, চলতি বছরের জানুয়ারির শেষের দিকে- যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক-ভিত্তিক বিনিয়োগ গবেষণা সংস্থা হিন্ডেনবার্গ রিসার্চ ভারতের শীর্ষ শিল্পগোষ্ঠী আদানির বিরুদ্ধে মরিশাসে ‘শেল’ কোম্পানির মাধ্যমে আর্থিক অনিয়মের অভিযোগ তুলে। ট্যাক্স ও আর্থিক সক্ষমতা ফাঁকি দেবার জন্য কোনো বড় প্রতিষ্ঠান বিদেশে ‘নামেমাত্র’ কোম্পানি খুললে তা ‘শেল’ কোম্পানি নামে পরিচিত। তবে আদানি কর্তৃপক্ষ শুরু থেকেই এসব অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে। এবার মরিশাস কর্তৃপক্ষ আদানির পক্ষ নিয়ে মন্তব্য করায় শেয়ার বাজারে ভালো অবস্থানে রয়েছে আদানির কোম্পানিগুলো।

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়:
x