বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৪:১৮ অপরাহ্ন

নতুন বাজেটে জনগণের কাধে নানাভাবে করের বোঝা চাপবে: সিপিবি

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১ জুন, ২০২৩

নিউজটি শেয়ার করুন

জাতীয় সংসদে উত্থাপিত বাজেট সম্পর্কে প্রাথমিক প্রতিক্রিয়ায় বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) সভাপতি মোহাম্মদ শাহ আলম ও সাধারণ সম্পাদক রুহিন হোসেন প্রিন্স বলেছেন, নিম্ন প্রবৃদ্ধি, সর্বোচ্চ মুদ্রাস্ফীতি এবং বৈদেশিক চাপের মুখে প্রদত্ত বাজেটে সাধারণ মানুষের আকাঙ্খা পূরণ হয়নি। এই বাজেটে দূর্নীতি ও বৈষম্য মুক্তির নির্দেশনা নেই, বরং জনগণের কাধে নানাভাবে করের বোঝা চাপানো হয়েছে। যা সাধারণ মানুষের জীবনকে বিপর্যস্ত করে তুলবে।

আজ বৃহস্পতিবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ সব কথা বলা হয়েছে। বিবৃতিতে এই বাজেটকে প্রত্যাখান করে বলা হয়, নয়া উদারনীতিবাদী অর্থনৈতিক দর্শনের ভিত্তিতে প্রণীত বাজেট বড় লোকের স্বার্থই রক্ষা করবে। ঘাটতি আরো বৃদ্ধি পাবে ও নির্ভরতার ঝুঁকি থেকে যাবে। আরো বলা হয়, আগে জিনিসপত্রের দাম বৃদ্ধি বাজেটের ওপর নির্ভর করতো। এখন আগে পরে দাম বাড়িয়ে মানুষের চোখকে ফাঁকি দেওয়া হয়। এই বাজেটে পাচারের টাকা ফেরত আনা ও খেলাপীঋণ উদ্ধারে বিশেষ নির্দেশনা না থাকায় ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়েছে বিবৃতিতে।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও ধারায় এ বাজেট প্রণীত হয়নি। অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে সংবিধানের নির্দেশনা মানা হয়নি। মুক্তবাজারের নামে লুটপাটের ধারা আমাদের সংবিধান অনুমোদন দেয় না, অথচ ওই ধারায় বাজেট প্রণীত হয়েছে। এ বাজেট আমলা ও লুটেরা নির্ভর। এটা প্রণয়নে জনগণের মতামত গ্রহণ করা হয়নি। বাজেটের ঘাটতি পূরণের জন্য সাধারণ মানুষ, মধ্যবিত্তের ওপর প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ করের বোঝা চাপানো হবে। এই বাজেট আয় বৈষম্য, সম্পদ বৈষম্য, খাদ্য-শিক্ষা-স্বাস্থ্য বৈষম্য, আঞ্চলিক বৈষম্য দূর করতে কোনো ভূমিকা নেবে নাÑবরং বৈষম্য আরো বাড়াবে।

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়:
x