বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:৩৪ অপরাহ্ন

মাধবপুর বাঘাসুরা কালিবাজার সড়ক সংস্কারের কাজ ফেলে ঠিকাদার উধাও

অর্থনীতি ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০

নিউজটি শেয়ার করুন

হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার শাহজিবাজার দরগা গেইট থেকে বাঘাসুরা কালিবাজার সড়কের কার্পেটিং-এর সংস্কার কাজ ফেলে ঠিকাদার উধাও হয়ে গেছে। এক বছরেও সড়কটি সংস্কার না হওয়ায় জনদুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করছে। এতে এলাকাবাসীর মধ্যে চরম ক্ষোভ ও হতাশা দেখা দিয়েছে।

উপজেলা এলজিইডি অফিস সূত্রে জানা গেছে, এক বছর আগে গুরুত্বপূর্ণ সড়কটি সংস্কারের জন্য কার্যাদেশ পেয়ে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান উভয় পাশে মটি খুড়ে গর্ত করা ও পুরাতন কার্পেটিং তুলে কিছুদিনের মধ্যেই কাজ বন্ধ করে দেয়। এতে করে রাস্তার গর্তে পানি আটকে পথচারী ও যানবাহন চলাচলে মারাত্মক ব্যাহত হচ্ছে। বাঘাসুরাসহ পার্শ্ববর্তী নাসিরনগর উপজেলার হাজার হাজার মানুষ এ রাস্তা দিয়ে চলাচল করে।

মাধবপুর উপজেলা এলজিইডি অফিস সূত্রে জানা গেছে, শাহজিবাজার-বাঘাসুরা কালিবাজার পর্যন্ত ১০ কিলোমিটার সড়কে সংস্কার কাজের কার্পেটিংয়ের জন্য টেন্ডার আহবান করা হয়। এ রাস্তায় ব্যয় ধরা হয়েছে প্রায় ৮ কোটি টাকা। ডলি কন্ট্রাকশন নামে একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান টেন্ডারের কাজ পেয়ে অনেক দেরিতে কাজ শুরু করে। টেন্ডার নির্দেশনা মতে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানটি সড়কের পাশে কিছু গর্ত ও কার্পেটিং তুলে কাজ শুরু করার কিছুদিন পরেই কাজ সম্পন্ন না করে মাঝপথে কাজ রেখে চলে যায়। এরফলে এই ভাঙাচোরা রাস্তায় জনগণের চলাচলের ভোগান্তি আরো বেড়ে যায়।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শাহাব উদ্দিন আহম্মেদ জানান, এ সড়ক দিয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ যাতায়াত করে। কিন্তু জনগুরুত্বপূর্ণ এ সড়কটি সংস্কার না করায় এখন জনগণের দুর্ভোগ চরমে পৌঁছেছে। রাস্তাটি দ্রুত সংস্কারের জন্য বারবার বলার পরেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করছে না। এ নিয়ে স্থানীয় জনগণের মধ্যে ক্ষোভ ও হতাশার সৃষ্টি হয়েছে। সচেতন জনগণ রাস্তাটি সংস্কারের জন্য মানববন্ধনসহ নানা কর্মসূচি পালন করেছে। এরপরেও সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারের টনক নড়েনি।

ডলি কন্ট্রাকশনের একটি সূত্র জানান, করোনার কারণে সড়কটির সংস্কার কাজ সম্পন্ন করা সম্ভব হয়নি।

মাধবপুর উপজেলা প্রকৌশলী জুলফিকার চৌধুরী বলেন, সময় মত কাজ শেষ না করায় ডলি কন্ট্রাকশনের টেন্ডার বাতিলের জন্য ঢাকা প্রধান প্রকৌশলী কার্যালয়ে বহু আগেই চিঠি দেওয়া হয়েছে। সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। নতুন করে টেন্ডার আহবান করে সড়কের কার্পেটিং ও সংস্কার কাজ সম্পন্ন করতে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়:
x