সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০৩:১৩ পূর্বাহ্ন

প্লাস্টিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সম্পর্কে জানলো শিক্ষার্থীরা

অর্থনীতি ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ৬ জুন, ২০২৪

নিউজটি শেয়ার করুন

দেশের শীর্ষস্থানীয় নিত্য-ব্যবহার্য ও ভোগ্যপণ্য (এফএমসিজি) উৎপাদন ও বিপণনকারী প্রতিষ্ঠান ইউনিলিভার বাংলাদেশ লিমিটেড (ইউবিএল) পরিবেশগত সঙ্কট মোকাবিলায় ‘অ্যাওয়্যারওয়েভ’ শীর্ষক একটি ক্যাম্পেইনের আয়োজন করেছে। প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের স্বেচ্ছাসেবী প্ল্যাটফর্ম ‘প্রয়াস’ এর আওতায় ইয়ং পাওয়ার ইন সোস্যাল এ্যাকশন (ইপসা) ও সানসিল্ককে সঙ্গে নিয়ে এ অসাধারণ উদ্যোগ গ্রহণ করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

বিশ্ব পরিবেশ দিবস, ২০২৪ এর সঙ্গে সঙ্গতি রেখে ০২ জুন, ২০২৪ থেকে ০৬ জুন, ২০২৪ পর্যন্ত চট্টগ্রাম ও ঢাকার ১০টি স্কুলের এক হাজার শিক্ষার্থীদের নিয়ে এ ক্যাম্পেইন আয়োজন করা হয়। শিক্ষার্থীদের শুধু প্লাস্টিক দূষণ সম্পর্কে জানানো এ উদ্যোগের উদ্দেশ্য নয়, বরং এর লক্ষ্য হলো প্লাস্টিক দূষণের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে পরবর্তী প্রজন্মের ক্ষমতায়ন করা।

ক্যাম্পেইনের আওতায়, ইউনিলিভার বাংলাদেশ (ইউবিএল) এর চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) জাভেদ আখতার এবং ফাইন্যান্স ডিরেক্টর জিনিয়া তানজিনা হকসহ ইউনিলিভারের বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা রাজধানীর শেরে বাংলা নগর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে যান এবং ক্যাম্পেইনটি পরিচালনা করেন। এই ক্যাম্পেইনে জাভেদ আখতার শিক্ষার্থীদের কাছে তাঁর সমুদ্রের তলদেশে ঘুরে দেখার একটি দারুণ গল্প শেয়ার করেন। পানির নিচে বিপুল পরিমাণ প্লাস্টিকের উপস্থিতি থাকার বিষয়টি তাঁর গল্পে উঠে আসে। ফলে শিক্ষার্থীরা প্লাস্টিক দূষণ মোকাবিলার গুরুত্ব সম্পর্কে বুঝতে পারে।

ক্যাম্পেইনের উদ্বোধনের পরপরই স্কুলের শিক্ষার্থীদের নানা ধরনের শিক্ষামূলক বিষয়ে অবহিত করতে একটি লার্নিং সেশনের আয়োজন করা হয়। স্বেচ্ছাসেবকরা প্লাস্টিকের অপচনশীলতার সমস্যার কথা উল্লেখ করে বর্জ্য ব্যবস্থাপনার গুরুত্বের বিষয়টি তুলে ধরেন। একইসঙ্গে, দৈনন্দিন জীবনযাপনে শিক্ষকবৃন্দ ও শিক্ষার্থীরা কিভাবে বর্জ্য ব্যবস্থাপনার ৩আর (3R) অর্থ্যাৎ ‘রিডিউস, রিইউজ, রিসাইকেল’ অনুসরণ করে কার্যকর প্লাস্টিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় অবদান রাখতে পারে, এর বিভিন্ন ব্যবহারিক উপায় নিয়েও তারা আলোচনা করেন।

ক্যাম্পেইনের সঙ্গে মেধাবী শিক্ষার্থীদের মননের সংযোগ ঘটাতে একটি কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। শিক্ষার্থীরা সেখানে পরিবেশ সংরক্ষণ বিষয়ক বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেয়। প্রত্যেক সঠিক উত্তর প্রদানকারী শিক্ষার্থীকে পুরস্কার হিসেবে গাছ দেওয়া হয়, যা একটি টেকসই ভবিষ্যত তৈরিতে ইউনিলিভারের প্রতিশ্রুতির প্রতিফলন। অনুষ্ঠানের উল্লেখযোগ্য অংশগুলোর মধ্যে অন্যতম ছিল রিফিল মেশিনের প্রদর্শনী। এটি নতুন প্লাস্টিক প্যাকেজিং তৈরি কমাতে ইউনিলিভারের তৈরি একটি উদ্ভাবনী সমাধান।

ইউনিলিভার বাংলাদেশের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক জাভেদ আখতার বলেন, “প্লাস্টিক প্যাকেজিং এবং এই বর্জ্যের অব্যবস্থাপনা এখন পরিবেশের জন্য চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। নিত্যব্যবহার্য পণ্য প্রস্তুতকারক হিসেবে আমরাও প্যাকেজিং এ প্লাস্টিক ব্যবহার করি। তাই দায়বদ্ধতা থেকেই আমরা নতুন ব্যবসায়িক কৌশল ‘দ্য গ্রোথ অ্যাকশন প্ল্যান’-এ প্লাস্টিক ইস্যু সাসটেইনেবিলিটির একটি প্রধান অগ্রাধিকার হিসেবে চিহ্নিত করেছি। উদ্ভাবনী সক্ষমতা ব্যবহার করে  পরিবেশে প্লাস্টিকের পরিমাণ কমানোর লক্ষ্যে আমরা কাজ করছি। আমাদের কৌশলগত উদ্যোগের অংশ হিসেবে অ্যাওয়্যারওয়েভ ক্যাম্পেইনের আয়োজন করেছি। এর মাধ্যমে আমাদের কর্মীরা প্লাস্টিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনার বিষয়ে তরুণদের সচেতন করছে এবং প্লাস্টিক দূষণ রোধের উপায় সম্পর্কেও শেখাচ্ছে। সেশন চলাকালীন, আমি শিক্ষার্থীদের মধ্যে আগ্রহ ও উৎসাহ লক্ষ্য করেছি। তারা সমাজের ইতিবাচক পরিবর্তনে কাজ করতে আগ্রহী। তাদের নিয়ে আমরা একসঙ্গে এমন এক পরিবর্তনের ধারা গড়ে তুলতে পারি- যার মাধ্যমে সবার অংশগ্রহণে প্লাস্টিক দূষণের এই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করা সম্ভব।”

পরিবেশের ইতিবাচক পরিবর্তনের জন্য প্লাস্টিক দূষণ রোধের শিক্ষার গুরুত্বকে তুলে ধরে এই অ্যাওয়্যারওয়েভ ক্যাম্পেইনটি। ক্যাম্পেইনে তরুণদের সম্পৃক্ত করার মাধ্যমে, তাদের শুধু জ্ঞান অর্জনের মধ্যে সীমাবদ্ধ না রেখে দায়িত্ববোধ তৈরির পাশাপাশি এসব শিক্ষার্থীর ক্ষমতায়নকে উৎসাহিত করাও এই উদ্যোগের উদ্দেশ্য।

প্রয়াসের মাধ্যমে ইউনিলিভারে কর্মরত ব্যক্তিদের পরিবেশে ইতিবাচক পরিবর্তনে অবদান রাখতে উৎসাহ প্রদান করা হয়। এর মাধ্যমে ইউনিলিভার বাংলাদেশ এমন একটি কর্মক্ষেত্রের সংস্কৃতি গড়ে তোলে, যেখানে উদ্দেশ্যমূলক ক্যারিয়ার গড়ে তোলার সঙ্গে সঙ্গে মানুষকে বিশ্বে ইতিবাচক পরিবর্তন সৃষ্টি করতে সক্ষম করে তোলা হয়। এ ধরনের অন্তর্ভুক্তিমুলক উদ্যোগ গ্রহণের মাধ্যমে, ইউনিলিভার বাংলাদেশ টেকসইতা ও সকলের সম্পৃক্ততার প্রতি তাদের প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করে। এভাবে একটি আরও টেকসই ভবিষ্যতের দিকে পরিবর্তনের ধারাকে এগিয়ে নিতে কাজ করে যাচ্ছে ইউনিলিভার বাংলাদেশ ।

এ জাতীয় আরো খবর..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আজকের অর্থনীতি ২০১৯।

কারিগরি সহযোগিতায়:
x